পাঁচ বছর ধরে অস্থায়ী ক্যাম্পাসে কাজ চালানোর পর, অবশেষে স্থায়ী ক্যাম্পাস পেতে চলেছে আইআইএম সম্বলপুর। শনিবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ওড়িশার সম্বলপুরে ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ ম্যানেজমেন্ট (আইআইএম) এর স্তায়ী ক্যাম্পাসের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন। ২০১৫ সালে ৭টি নতুন তৃতীয় প্রজন্মের আইআইএম স্থাপনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল মোদী সরকার। তারমধ্যে অন্যতম ছিল আইআইএম সম্বলপুর।

এদিন আইআইএম সম্বলপুরের স্থায়ী ক্যাম্পাসের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করে বলেন, এই প্রতিষ্ঠান ম্যানেজমেন্ট জগতে ওড়িশাকে একটি নতুন পরিচয় দেবে। তিনি আরও জানান, আইআইএমগুলি আত্মনির্ভর ভারত গঠনের পথ সুগম করবে। এই প্রতিষ্ঠান থেকে প্রাপ্ত জ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে প্রধানমন্ত্রী আইআইএম সম্বলপুরের শিক্ষার্থীদের ওড়িশার স্থানীয় বাসিন্দাদের উন্নয়নে সহায়তা করার আহ্বান জানান। 'লোকাল'-কে 'গ্লোবালে' পরিণত আহ্বান জানান। আইআইএম স্থানীয় পণ্য এবং বৈশ্বিক সহযোগিতার মধ্যে একটি সেতু হিসাবে কাজ করবে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী। "

সেইসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী দেশের ক্রমবর্ধমান স্টার্টআপ সংস্কৃতি এবং ম্যানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠানগুলির স্নাতকরা কীভাবে তাদেরকে সেই সংস্কৃতিকে এক নতুন উচ্চতায় নিয়ে যেতে সাহায্য করতে পারে সেই সম্পর্কেও আলোচনা করেন। তিনি বলেন, আজ যেগুলি স্টার্টআপ, সেগুলি আগামী দিনে বহুজাতিক সংস্থায় পরিণত হতে পারে বলে আশা প্রকাশ করেন নরেন্দ্র মোদী।

২০১৫ এবং ২০১৬ সালে সম্বলপুর ছাড়াও সালে নাগপুর, জম্মু, অমৃতসর, বোধগয়া, সিরমৌর এবং বিশাখাপত্তনমে তৃতীয় প্রজন্মের আইআইএমগুলি স্থাপন করেছিল মোদী সরকার। তবে অতি সম্প্রতি আইআইএমগুলির স্বায়ত্তশাসনকে ঘিরে বিতর্ক শুরু হয়েছে। কেন্দ্রীয় শিক্ষা মন্ত্রক ভারতের অন্যতম সেরা এই প্রতিষ্ঠানগুলির স্বায়ত্তশাসন অনেকাংশেই কমিয়ে দিতে পারে বলে অনেকে আশঙ্কা করেছেন।