আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি অর্থাৎ রবিবার পশ্চিমবঙ্গ ও অসম সফর করবেন নরেন্দ্র মোদী। প্রথমে তিনি অসম যাবান। সেখানে একগুচ্ছ কর্মসূচিতে অংশ নেবেন তিনি। তারপরই আসবেন পশ্চিমবঙ্গে। হলিয়ায় যাবেন তিনি। দুই রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন আসন্ন। তার আগে প্রধানমন্ত্রীর এই সফর রীতিমত গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন ওয়াকিবহাল মহল। 


পশ্চিমবঙ্গে প্রধানমন্ত্রী
আগামী রবিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এলপিজি আমদানি টার্মিনাল উদ্বোধন করবেন। সেটি তৈরি করেছে পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন লিমিটেড। ১১০০ কোটি টাকা ব্যায়ে এটি কৈরি করা হয়েছে। বছরে এক মিলিয়ন মেট্রিকটন এলপিজি রাখার ক্ষমতা রয়েছে। এটি পশ্চিমবঙ্গ ও পূর্ব ও উত্তর পূর্ব ভারতের অন্যান্য রাজ্যে এলপিজির ক্রমবর্ধমান চাহিদা পূরণ করতে সক্ষম হবে। প্রতিটি বাড়িতে রান্নার গ্যাস পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে এই পদক্ষেপ অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। 

প্রধানমন্ত্রী এই দিনে ৩৪৮ কিলোমিটার লম্বা একটি গ্যাস পাইপলাইনেরও উদ্বোধন করবেন। এই পাইপলাইনটি ডোবি থেকে দুর্গাপুর পর্যন্ত প্রাকৃতিক গ্যাস সরবরাহ করতে সক্ষম।প্রায় ৪০০ কোটি টাকা বিনিয়োগে নির্মিত এটি এক দেশ এক গ্যাস গ্রিড অর্জনের লক্ষ্যে এটি আগামী দিনে গুরুত্বপূর্ণ মাইল ফলক হিসেবে চিহ্নিত হবে।  ২৪০০ কোটি টাকার পাইপ লাইনটি  ঝাড়খণ্ডের সিন্ড্রির সার উৎপাদন কেন্দ্র থেকে শুরু করে এই রাজ্যের দুর্গাপুরের ম্যাটিক্স সার উৎপাদন কেন্দ্রে গ্যাসের চাহিদা পুরণ করবে। একই সঙ্গে এটি শিল্প বাণিজ্যিক ও অটোমোবাইল ক্ষেত্রেও গ্যাসের চাহিদা পুরণ করবে। 


প্রধানমন্ত্রী ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশনের হলদিয়া রিফাইনারি বিভাগের দ্বিতীয় অনুঘটক আইসোডেক্সাস ইউনিটের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করবেন। এছাড়ও প্রধানমন্ত্রী একই দিনে ১৯০ কোটি টাকা ব্যায়ে হলদিয়া রানিচকের ৪ লেনের আরওবি কাম ফ্লাইওভারের উদ্বোধন করবেন। এই ফ্লাই ওভারটি চালু হয়ে গেলে কোলাঘাট থেকে হলদিয়া ডক কমপ্লেক্স ও আসপাশের এলাকাগুলিতে যানবাহন চলাচল অনেকটাই সহজ হয়ে যাবে। ভ্রমণের সময়ের যেমন বাঁচবে তেমনই কমবে খরচও। সেদিন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে মঞ্চ শেয়ার করবেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।