প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ১২৫তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে আগামী ২৩ জানুয়ারি অর্থাৎ শনিবার কলকাতায় আসছেন। একই সঙ্গে তিনি অসমও সফরেও যাবেন। চলতি বছর কেন্দ্রীয় সরকার নেতাজির জন্মদিনটিকে পরাক্রম দিবস হিসেবে ঘোষণা করেছে। আর সেইদিনেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কলকাতা সফর বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ। এই দিনই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী অসম যাবেন। সিবসাগরের জেরেঙ্গা পাথর পরিদর্শন করবেন। একই সঙ্গে ১ লক্ষ ৬ হাজার পাট্টা বিলি করবেন। 


প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী মেমোরিয়াল স্মৃতিসৌধে পরাক্রম দিবসের উদ্বোধন করবেন। এই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন তিনি। গোটা দেশের প্রতি নেতাজির নিঃস্বার্থ সেবা, চেতনা আর শ্রদ্ধার কথা তুলে ধরবেন। একই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শ্রদ্ধা জানাবেন নেতাজিকে। দেশের স্বাধীনতার জন্য নেতাজির আত্মত্যাগের কথা স্মরণ করেই দিনটিকে পরাক্রম দিবস হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে বলেও জানান হয়েছে কেন্দ্রের তরফ থেকে। 

নেতাজির জন্মদিন উপলক্ষ্যে স্থানয় প্রদর্শনী, থ্রিডি প্রজেকশন ম্যাপিং শো-র উদ্বোধন করা হবে। প্রধানমন্ত্রী  নেতাজির স্মৃতিতে একটি মুদ্রা ও ডাকটিকিট প্রকাশ করবেন। নেতাজির জন্ম দিন উপলক্ষ্যে 'আমরা নতুন যৌবনের দূত' নামে একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেরও ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর সফরসূচির তালিকায় রয়েছে কলকাতার জাতীয় গ্রন্থাগার। সেখানে একটি আন্তর্জাতিক সম্মেলনেও অংশগ্রহণ করবেন তিনি। উদ্যোক্তাদের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী শিল্পিদের সঙ্গে কথা বলবেন।

একই দিলেন অসম সফর করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি অসমের শিবসাগরে এক লক্ষ ৬ হাজার জমির পাট্টা বিলি করবেন। সংশ্লিষ্ট সংশাপত্র তুলে দেবেন গ্রাহকদের হাতে। রাজ্যের আদিবাসীদের ভূমি রক্ষা করা প্রয়োজন। এই কথা বিবেচনা করেই অসম সরকার এই পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। আদিবাসীদের মধ্যে জমির অধিকার রক্ষায় নতুন করে জোর দিয়ে একটি বিস্তৃত ভূমি নীতি চালু করতে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। অসম ২০১৬ সালে ৫ লক্ষ ৭৫ হাজার ভূমিহীন মানুষ ছিল। বর্তামন সরকার সেই সংখ্যা ধীরে ধীরে কমিয়ে আনতে চাইছে।  আর সেই কারণে পাট্টা বিলির ওপর জোর দেওয়া হয়েছে।