অযোধ্যা মামলার রায় নিয়ে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সুপ্রিম কোর্টের ঐতিহাসিক রায়কে স্বাগত জানিয়ে মন্দির নির্মাণের নির্দেশের প্রশংসাও করেছেন প্রধানমন্ত্রী। সুপ্রিম কোর্টের পাঁচ সদস্যের সাংবিধানিক বেঞ্চ যে রায় দিয়েছে, তাতে রাম মন্দির তৈরির পথে আর কোনও বাধা নেই। একই সঙ্গে মসজিদ নির্মাণের জন্য সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডকে পাঁচ একর জমি দেওয়ার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারকে। 

জাতির উদ্দেশে ভাষণে প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'আজ সুপ্রিম কোর্ট যে গুরুত্বপূর্ণ রায় দিয়েছে, তার পিছনে কয়েকশো বছরের ইতিহাস জড়িয়ে আছে।  গোটা দেশ চেয়েছিল যে এই বিষয়টি নিয়ে প্রতিদিন আদালতের শুনানি হোক, সেটাই হয়েছে, আর আজকে তার রায়ও বেরিয়ে গিয়েছে।'

প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'প্রত্যেক শ্রেণি, প্রত্যেক ধর্ম সম্প্রদায়, প্রত্যেক সম্প্রদায়ের মানুষ এই রায়কে খোলা মনে স্বাগত জানিয়েছে। আর এটাই আমাদের প্রাচীন সংস্কৃতি, ঐতিহ্য এবং সংহতির প্রমাণ।'
বিচারব্যবস্থার প্রশংসাও শোনা গিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর গলায়। তিনি বলেন, 'ভারতীয় বিচারব্যবস্থার ইতিহাসে আজ একটি সোনালি অধ্যায়। এই মামলার শুনানি চলাকালীন সুপ্রিম কোর্ট সবপক্ষের কথা ধৈর্য ধরে শুনেছে এবং সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সুপ্রিম কোর্ট এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার পিছনে দৃঢ় সদিচ্ছার প্রমাণ দিয়েছে। সেই কারণেই আমাদের দেশের বিচারপতি, আদালত এবং বিচারব্যবস্থার প্রশংসা প্রাপ্য।'
 
সুপ্রিম কোর্টের এ দিনের রায়ের সঙ্গে বার্লিন প্রাচীরের পতনের ঘটনারও তুলনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, 'আজ থেকে তিরিশ বছর এই দিনেই বার্লিন প্রাচীরব ভেঙে ফেলা হয়েছিল। যার ফলে দুই সম্প্রদায়ের মানুষ মিলে গিয়েছিলেন। আজই কর্তারপুর করিডরের উদ্বোধন হলো। আর আজই অযোধ্যা মামলা নিয়ে এই রায় আমাদের সামনে এগিয়ে চলার শিক্ষা দিল। আজকের বার্তাই হল একসঙ্গে মিলেমিশে বেঁচে থাকার।'

প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্ত আমাদের নতুন সন্ধিক্ষণের সামনে নিয়ে এসেছে। এই বিতর্ক হয়তো কয়েকটি প্রজন্মের ক্ষতি করেছে। কিন্তু আজকের সিদ্ধান্তের পরে আমাদের সবাইকে শপথ নিতে হবে যে নতুন প্রজন্ম এবার নতুন ভারত গড়বে।'