পোয়াবারো ভোট কৌশলী প্রশান্ত কিশোর-এর। বাংলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তৃতীয়বারের জন্য জয়ী করার দায়িত্ব নিয়েছেন তিনি। সেই কাজে কতটটা সফল হবেন, তা জানা যাবে আগামী ২ মে। সেই পরীক্ষায় ফল বের হওয়ার আগেই পরের চাকরি পেয়ে গেলেন তিনি। এদিন তাঁকে প্রধান উপদেষ্টা হিসাবে নিয়োগ করলেন বিশিষ্ট কংগ্রেস নেতা তথা পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং। এই পদটি মন্ত্রিপরিষদের অন্যান্য মন্ত্রীর সমমর্যাদার পদ বলে জানিয়েছে পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রীর কার্যালয়। সেই সঙ্গে সম্মানদক্ষিণা হিসাবে ১ টাকা করে পাবেন।

এদিন ক্যাপ্টেন অমরিন্দর একটি টুইট করে বলেন, প্রশান্তকিশোরকে তাঁর প্রধান উপদেষ্টা হিসাবে নিযুক্ত করতে পেরে তিনি খুবই আনন্দিত। পঞ্জাবের মানুষের উন্নতির জন্য তাঁরা একসঙ্গে কাজ করবেন বলে প্রত্যাশা করছেন বলে জানিয়েছেন সেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। উল্লেখ্য আগামী বছরই অর্থাৎ ২০২২ সালে পঞ্জাবের বিধানসভা নির্বাচন। এইবারের নির্বাচনে তিনটি কেন্দ্রীয় কৃষি আইনের বিরুদ্ধে কৃষকদের আন্দোলন খুব বড় ভূমিকা নিতে চলেছে, তা বলাই বাহুল্য। এখনও পর্যন্ত কৃষকদের সমর্থন পেয়েছেন অমরিন্দর সিং। কিন্তু একটটি ভুল পদক্ষেপেও খেলা ঘুরে যেতে পারে।

ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং-এর সঙ্গে প্রশান্ত কিশোর

এই বিষয়ে প্রশান্ত কিশোর জানিয়েছেন, এই প্রস্তাব এক বছর আগেই পেয়েছিলেন তিনি। ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং তাঁর কাছে 'পরিবারের মতো' দাবি করে ভোট কৌশলী জানিয়েছেন তিনি পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রীকে কখনই না বলতে পারেন না। এর আগে ২০১৭ সালেও পঞ্জাবের বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের প্রচার কৌশল ঠিক করে দিয়েছিলেন প্রশান্ত কিশোর। ১১৭-সদস্যের বিধানসভায় ৭৭টি আসনে জয়ী হয়ে ক্ষমতায় এসেছিলেন ক্যাপ্টেন অমরিন্দর।