সংসদে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন পাস করার পর থেকেই দেশব্যাপী হিংসাত্মক প্রতিবাদ শুরু হয়েছে। রেলের কামড়া জ্বালিয়ে দেওয়া থেকে স্টেশনে ভাঙচুর চলছে। ভারতীয় রেলওয়ে হিসেব করে দেখেছে গত কয়েকদিনে ১০০ কোটি টাকারও বেশি আর্থিক ক্ষতি হয়েছে মন্ত্রকের। এর ক্ষতিপূরণ-এর জন্য রেল বিভাগ রাজ্য সরকারগুলির বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করবে বলে জানিয়েছে।

রেল সূত্রে খবর, রেল কর্মকর্তাদের বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে, প্রতিবাদের যে হিংসাত্মক আন্দোলনে রেল এই বিশাল আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছে, তার জন্য রাজ্য সরকারগুলিই দায়ী। রেলের বক্তব্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব রাজ্য সরকারের। আন্দোলনকারীদের যদি পথেই রাজ্যসরকারগুলি থামাতো তাহলে রেল লাইনে বা স্টেশন তারা পৌঁছতে পারত না। সেই ক্ষেত্রে রেলের এই আর্থিক ক্ষতি হত না।

রেলের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে আন্দোলনকারীরা সকলেই সংশ্লিষ্ট রাজ্যগুলির বাসিন্দা। কাজেই তাদের নিয়ন্ত্রণ করা রাজ্য সরকারেরই দায়িত্ব। প্রতিবাদের সময় রেলের যে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তার দায় রাজ্য সরকারকেই নিতে হবে। তবে রাজ্য সরকারগুলির বিরুদ্ধে রেল কোন আদালতে মামলা করবে সেই সম্পর্কে এখনও কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি। প্রতিবাদের নামে ভাঙচুর বিষয়ে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের ভিত্তিতেই রেলের পক্ষ থেকে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে মামলা করা হচ্ছে।

এদিকে হাওড়া স্টেশনে টানা পাঁচদিন ধরে ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে অবশ্য জেলা প্রশাসন ইন্টারনেট পরষেবা ফের চালু করার নির্দেশ দিয়েছিল। তবে সন্ধ্যাতেই ফের ইউটার্ন নেয় তারা। জানায় শুক্রবার-ও বিকেল ৫টা পর্যন্ত অন্তত ইন্টারনেট সার্ভিস অব্যাহত থাকবে।