ভারতীয় রেল যাত্রীদের জন্য নিয়ে এল দারুণ সুখবর। এবার থেকে দূরপাল্লার ট্রেনে প্রায় চার লক্ষ অতিরিক্ত কোচ যুক্ত করতে চলেছে  ভারতীয় রেল। আগামী অক্টোবর থেকে এই নয়া পরিষেবা চালু করতে চলেছে ভারতীয় রেল। 

তবে এবার প্রযুক্তিকে আরও ভালভাবে ব্যবহার করার পথে চলেছে ভারতীয় রেল। সূত্রের খবর, এখন থেকে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে রেলের ইঞ্জিন থেকেই বিদ্যুৎ উৎপাদনের পরিকল্পনা করা হচ্ছে। এতদিন ধরে বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য পাওয়ার ভ্যানের ওপর নির্ভর করতে হত। পাওয়ার ভ্যানের সরবরাহ করা বিদ্যুৎ থেকেই এতদিন ট্রেনের আলো, পাখা বা এয়ার কন্ডিশনার চলত। প্রসঙ্গত এই পাওয়ার কারগুলির নন এসি কোচে প্রতি ঘণ্টায় বিদ্যুৎ সরবরাহ করার জন্য ৪০ লিটার ডিজেল প্রয়োজন হয়। আর বাতানুকুল কামড়ার ক্ষেত্রে পাওয়ার কারের প্রয়োজন হয় প্রতি ঘণ্টায় ৬৫ থেকে ৭০ লিটার ডিজেল।  আর এই খাতে প্রতি বছর ভারতীয় রেলের ব্যয় হয় প্রায় ৬ হাজার কোটি টাকা। 

ওড়িশায় উদ্ধার হল প্রায় ১১ ফুটের শঙ্খচূড়, ওজন প্রায় ২৫ কেজি

এই খাতে ব্যয় কম করার লক্ষ্যে এখন ভারতীয় রেল। আর এই খাতে ব্যয় কম করেই নিয়ে আসা হবে নতুন কোচ। আগামী অক্টোবর মাস থেকে প্রতিদিন প্রায় ৫ হাজার অতিরিক্ত কোচ চালাবে ভারতীয় রেল। আর এর ফলে দূরপাল্লা ট্রেনের আসন সংখ্যা বেড়ে গিয়ে হবে ৪ লক্ষ। আগামী অক্টোবর থেকে রেলের ইঞ্জিন থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের বিষয়টি চালুর অপেক্ষায় রয়েছে ভারতীয় রেল।