আর মাত্র ২৪ ঘণ্টার অপেক্ষা। তারপরেই বর্ষা এসে আছড়ে পড়বে কেরলে। প্রাক বর্ষার বৃষ্টির  অভাবে ভোগা গোটা দেশের জন্যে এই বার্তা সুখের হলেও কেরলের জন্য তত নয়। কেন না গত বছর অগস্ট মাসে ভয়াবহ বন্যায় কার্যত ভেসে গিয়েছিল কেরল। প্রায় ৩৫০ লোক মারা যায় কেরলে। ফলে এবার বৃষ্টির শুরুতেই কড়া হাতে বিপর্যয় মোকাবিলা করতে তৈরি হচ্ছে কেরল। 

প্রশাসনের তরফে খবর, ইতিমধ্যেই জারি হয়েছে  সতর্কবার্তা। প্রাথমিক ভাবে এই বৃষ্টির আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা ত্রিশূরে আগামী ১০ জুন। লাল সতর্কতা রয়েছে এরনাকুলাম, মল্লপুরম ও কোহিকোর জেলায়।

অন্য দিকে তিরুঅনন্তপুরম কোল্লাম, আলাফ্ফুজা জেলাতে জারি হয়েছে কমলা সতর্কতা‌। অতি ভারী বৃষ্টিজনিত ক্ষয়ক্ষতির মোকাবিলায় তৈরি থাকতে বলা হচ্ছে হাসপাতালগুলিকে। সরকারের তরফে প্রতিটচি দফতরে বিপর্যয় মোকাবিলার হ্যাণ্ডবুক পৌঁছে দেওয়া হয়েছে ইতিমধ্যে। মৎস্যজীবীগদের সমুদ্রে না যেতে ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে। 

প্রসঙ্গত এবার কেরালায় বৃষ্টি ঢুকছে অন্তত সাত দিন পড়ে।  অন্য দিকে গোটা মহারাষ্ট্র প্রাক বর্ষার বৃষ্টির অভাবে ধুঁকছে। আবহবিদদের অনুমান, হঠাৎ অতিবৃষ্টিতে শুকিয়ে আসা জলাধার তো ভরবেই না, বন্যা হতে পারে বহু জায়গায়।