প্রায় দু' মাস ধরে বিক্ষোভ চলছে। এবার ভ্যালেন্টাইনস ডে-তে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আমন্ত্রণ জানালেন শাহিনবাগের আন্দোলনকারীরা। রীতিমতো পোস্টার-এ লিখে প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। শাহিনবাগ-এ শেষ পর্যন্ত সত্য়িই তিনি গিয়ে হাজির হলে উপহার দেওয়ার পাশাপাশি মোদীকে নিয়ে গান গাওয়ারও প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন আন্দোলনকরীরা। 

শাহিনবাগে ঝোলানো এমনই কিছু পোস্টারে প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে লেখা রয়েছে. 'প্রধানমন্ত্রী দয়া করে শাহিনবাগে আসুন, আপনার উপহার সংগ্রহ করে আমাদের সঙ্গে কথা বলুন।'

নাগরিকত্ব আইন এবং এনআরসি-র বিরুদ্ধে গত ১৫ ডিসেম্বর থেকে শাহিনবাগ-এ আন্দোলন চলছে। গোটা দিল্লি নির্বাচনে এই শাহিনবাগ আন্দোলনকে আক্রমণ করেও দিল্লি দখল করতে পারেন বিজেপি। 

সইদ তাসির আহমেদ নামে এক বিক্ষোভকারীর কথায়, 'প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী হোন বা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বা অন্য কেউ। তাঁরা এসে আমাদের সঙ্গে কথা বলতে পারেন। তাঁরা যদি আমাদের বোঝাতে পারেন যে যা হচ্ছে তা সংবিধানবিরোধী নয়, তাহলে আমরা আন্দোলনে ইতি টানব।'

ওই বিক্ষোভাকারীর প্রশ্ন, 'অনেকেই বলছেন সিএএ দিয়ে কখনওই কারও নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়া হবে না। কিন্তু এটাও কেউ বলছে না যে এই আইন পাশ করিয়ে দেশের কি উপকার হয়েছে।' একই সঙ্গে নাগরিকত্ব আইন কীভাবে দেশে মূল্যবৃদ্ধি, আর্থিক মন্দা, বেকারত্বের মতো সমস্যার সমাধানে সাহায্য করবে?