নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন বিরোধী প্রতিবাদে গত কয়েকদিন ধরে একের পর এক রাজ্যে হিংসাত্মক আন্দোলন ছড়িয়ে পড়েছে। এমনকী রাজধানী দিল্লিতেও পরিস্থিতি অত্যন্ত খারাপ। দিল্লির জামে মসজিদের শাহি ইমাম, সৈয়দ আহমেদ বুখারি এই বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদের সময় সংযমি হওয়ার আবেদন করেছেন। তিনি বলেছেন, প্রতিবাদ করার 'গণতান্ত্রিক অধিকার' প্রয়োগের সময়ে আবেগকে নিয়ন্ত্রণ করা জরুরি।

নাগরিকত্ব আইনের পাশাপাশি সারা দেশে জাতীয় নাগরিকপঞ্জী গঠন নিয়েও বারতের বিভিন্ন জায়গায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে। ইমাম বুখারি বলেছেন, এনআরসি এখনও আইন হয়ে ওঠেনি, তাই আগে ভাগে দুশ্চিন্তার কারণ নেই। তিনি আরও জানান, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন-এর আওতায় পাকিস্তান, আফগানিস্তান এবং বাংলাদেশ থেকে ভারতে আসা মুসলিম শরণার্থীরা ভারতীয় নাগরিকত্ব পাবেন না। কিন্তু ভারতে বসবাসরত মুসলমানদের সঙ্গে এর কোনও যোগসূত্র নেই।

নাগরিকত্ব বিলের প্রতিবাদে প্রথমে অসম ও ত্রিপুরায় আন্দোলন হিংসাত্মক হয়ে উঠেছিল। তারপর একে একে বারতের বেশ কয়েকটি রাজ্যে এই আগুন দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়েছে। পরিস্তিতি উত্তপ্ত হয়েছে পশ্চিমবঙ্গ, কেরল, মধ্যপ্রদেশ - এমনকী দিল্লিতেও। বুধবারও পূর্ব দিল্লির সীলামপুর ও ব্রিজপুরি এলাকায় পুলিশের সঙ্গে ব্যাপক সংঘর্ষ হয় প্রতিবাদীদের। তার আগে জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়েও একই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল।