প্রায় দেড়মাস ধরে চলা কৃষক আন্দোলন নিয়ে এবার উদ্বেগ প্রকাশ করল সুপ্রিম কোর্ট। এতদিন পরেও কেন কৃষক আন্দোলনের কোনও সমাধান সূত্র পাওয়া  গেল না তা নিয়ে প্রশ্নও তুলেছে। তবে আগামী সোমবার অর্থাৎ ১১ জানুয়ারী নতুন তিনটি আইনের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া সমস্ত মামলা শীর্ষ আদালত শুনবে বলেও জানিয়ে দিয়েছে। 

বুধবার কৃষক আন্দোলন নিয়ে মামলার শুনানি হয় প্রধানমন্ত্রী বিচারপতি এসএ বোবদে, এএস বোপান্না ও ভি রামসুব্রাহ্মনিয়মের বেঞ্চে। আদালতের পর্যবেক্ষণ অবস্থার একদমই কোনও উন্নতি হয়নি। তিনটি কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে গত ২৬ নভেম্বর থেকে দিল্লির সিংহু, টিকোরি-সহ একাধিক সীমানায় আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে কৃষকরা। আন্দোলনের সামনের সারিতে রয়েছে পঞ্জাব ও হরিয়ানার কৃষকরা। সমস্য়া সমাধানে একের পর এক বৈঠক হয়েছে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত সমাধান সূত্র অধরাই রয়ে গেছে। কেন্দ্রের সঙ্গে বিক্ষুদ্ধ কৃষকদের বৈঠক আগামী ৮ জানুয়ারি (শুক্রবার)। তার তিন দিন পরেই তিনটি কৃষি আইন নিয়ে দায়ের হওয়া যাবতীয় মামলার শুনবে বলেই জানিয়ে সুপ্রিম কোর্ট। 

অন্যদিকে এদিনও কেন্দ্রীয় কৃষি মন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমর জানিয়েছেন, কেন্দ্রীয় সরকার কৃষকদের সামগ্রিক উন্নতির জন্য দায়বদ্ধ। যাঁরা নতুন তিনটি আইনকে সমর্থন জানিয়েছেন তাঁদের সঙ্গে যেমন কথা বলা হচ্ছে, তেমন যাঁরা বিরোধিতা করছে তাদের সঙ্গেও কথা বলা হচ্ছে।  নরেন্দ্র সিং তোমর নিশ্চিন যে আন্দোলনকারী কৃষক সংগঠনের নেতারা কৃষকদের কল্যাণের জন্যই একটি সমাধানসূত্রে পৌঁছাবেন। যদিও এখনও পর্যন্ত সুর নরম করেনি আন্দোলনকারী কৃষকরা। নতুন তিনটি আইন প্রত্যাহার না হওয়া পর্যন্ত তাঁরা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন বলেও জানিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকার এখনও পর্যন্ত আইন প্রত্যাহারের কোনও ইঙ্গিত দেয়নি। আইনে সংশোধন আনতে চেয়ে প্রস্তাব চেয়েছে আন্দোলনকারী কৃষকদের থেকে।