বুধবার (১৫ ই জানুয়ারি) আর্মি ডে প্যারেডে প্রথম মহিলা হিসেবে তিনি 'প্যারেড অ্যাডজুট্যান্ট' অর্থাৎ প্যারেডে নেতৃত্ব দিয়ে ইতিহাস গড়লেন ভারতীয় সেনাবাহিনীর কর্পস অব সিগন্যালস-এর ক্যাপ্টেন তানিয়া শেরগিল। একদিন প্রক পরেই তিনি কাঁধে তুলে নিয়েছিলেন রকেট লঞ্চার। এদিন ইতিহাসে নাম ওঠার পর তাঁর সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।

তাঁকে বলা যায় একেবারে সেনাবাহিনীর ঘরের মেয়ে। তাঁর পরিবারে সেনা সদস্যের ভরভরান্ত। আগের তিন প্রজন্মই বাহিনীর হয়ে দেশ সেবা করেছেন। বাবা ছিলেন গোলন্দাজ বাহিনীর সদস্য, দাদু সাঁজোয়া বাহিনীর, আর দাদুর বাবা ছিলেন শিখ রেজিমেন্টের পদাতিকবাহিনীর জওয়ান। ফ্রক পরা ছবিটি সম্ভবত গোলন্দাজ বাহিনীতে থাকা তাঁর বাবা-র। ছবিটি সেনাবাহিনীর প্রাক্তন মেজর তথা বিজেপি নেতা সুরেন্দ্র পুনাইয়া সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন।

২০১৭ সালের মার্চ মাসে চেন্নাই-এর অফিসার্স ট্রেনিং অ্যাকাডেমি থেকে ক্যাপ্টেন তানিয়া শেরগিল কর্পস অব সিগন্যালস-এর ক্যাপ্টেন হিসাবে নিযুক্ত হন। তার আগে ইলেক্ট্রনিক্স অ্যান্ড কমিউনিকেশনস-এ স্নাতক করেন। গত বছর প্রজাতন্ত্র দিবসের প্যারেডে ক্যাপ্টেন ভাবনা কস্তুরী প্রথম মহিলা অফিসার হিসেবে প্যারেডে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। আর এদিন আরও এক মহিলা ক্যাপ্টেন তানিয়া শেরগিল সেনা দিবসের কুচকাওয়াজে প্রথম মহিলা অফিসার হিসেবে নেতৃত্ব দিলেন।

১৯৪৯ সালের ১৫ জানুয়ারি ব্রিটিশ ভারতের সর্বশেষ ব্রিটিশ কমান্ডার স্যার ফ্রান্সিস বুচারের কাছ থেকে ভারতীয় সেনাবাহিনীর প্রথম সর্বাধিনায়ক হিসাবে দায়িত্ব গ্রহণ করেছিলেন ফিল্ড মার্শাল কে এম কারিয়াপ্পা। সেই ঘটনাকে স্মরণ করতে প্রতিবছর এই দিনটি সেনা দিবস হিসাবে পালিত হয়। রাজধানীতে ফিল্ড মার্শাল কে এম ক্যারিপ্পার নামে নামাঙ্কিত ক্যারিয়াপ্পা প্যারেড গ্রাউন্ড-এ প্যারেড এবং অন্যান্য সামরিক প্রদর্শনী চলে। এর পাশাপাশি সেনা দিবস পালিত হয় দেশের ছয়টি সেনা সদর দফতরেও। এই দিনে দেশকে রক্ষার জন্য প্রাণ উৎসর্গকারী বীর সেনাদেরও স্মরণ করা হয়।