দেশের মধ্যে কালো টাকা রুখতে নতুন সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে মোদী সরকার। নোটবন্দির পর মোদী সরকার দেশের মধ্যে কালো টাকা রুখতে নতুন ব্যবস্থা নিতে চলেছে বলে জানা গিয়েছে। অনেক সময় নিজেদের কালো টাকাতে সোনা কেনা হয়। যার জেরে কালো টাকার রঙ আর কালো থাকে না, আর অন্য দিকে নিজের সম্পত্তির পরিমাণ বাড়তে থাকে। মোদী প্রশাসনের নয়া সিদ্ধান্তের জেরে এইবভাবে কালোটাকা লুকিয়ে রাখা যাবে না বলেই মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল। 

আরও পড়ুন ইনস্টাগ্রামে খুল্লম-খুল্লা চলছে নারী পাচার, কেনাবেচা হচ্ছে যৌনদাসী

মোদী সরকার হলুদ ধাতুর ওপর নতুন কী নিয়ম আনতে চলেছে। প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর ও অর্থমন্ত্রীর দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে, পৃথকভাবে সমস্ত ব্যক্তিকে নিজেদের সোনার পরিমাণ সরকারের কাছে প্রকাশ করতে হবে। রসিদ বিহীন নির্দিষ্ট পরিমাণ সোনার ওপর ছাড় দেওয়া হবে। কিন্তু তারপরেও রসিদ বিহীন সোনা থাকলে, তার ওপর কর প্রয়োগ করা হবে। তবে সোনার গয়নার রসিদ থাকলেও কর দিতে হবে কি না, সেই বিষয়ে কোনও স্পষ্ট তথ্য দেওয়া হয়নি। 

আরও পড়ুন অস্বস্তিতে সরকার, হোয়াটসঅ্যাপের দাবি মে মাসেই জানানো হয়েছিল নজরদারির কথা

মোদী সরকার এই নয়া সিদ্ধান্তের পরিকল্পনা করছে। এই সিদ্ধান্তে শীলমোহর পড়তে বেশ কিছুটা সময় আছে বলে জানা গিয়েছে। কতদিনের মধ্যে এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়িত করা যাবে, সেই বিষয়ে কোনও তথ্য প্রধানমন্ত্রী দপ্তর বা অর্থদপ্তর দেয়নি। তবে জানা গিয়েছে,  মোদী সরকার একটি গোল্ড বোর্ড তৈরি করার পরিকল্পনা করছে। এই বোর্ডে সরকারি আধাকারিকদের পাশাপাশি অন্য সদস্যরাও থাকবেন বলে জানা গিয়েছে। সোনা কেনার প্রতি মানুষের আগ্রহ বাড়াতে বা সোনার মাধ্যমে নিজের সম্পত্তি বিস্তারের জন্য নতুন নতুন প্রকল্প বা অফার গোল্ড বোর্ডের তরফে নিয়ে আসা হবে বলে জানা গিয়েছে। তবে যে হারে সোনার দামের সঙ্গে সঙ্গে দেশে বেকারত্বের হার বাড়ছে, এই গোল্ড বোর্ড কতটা বাস্তবায়িত হবে, সেই নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে বলে জানা গিয়েছে।