পর পর দুদিন আস্থা ভোট এড়িয়েছেন। সরকার বাঁচাতে কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী এইচডি কুমারস্বামী শুক্রবার অস্ত্র করলেন বাইবেলকে। দাবি করলেন, তাঁর সরকার ঈশ্বরের সরকার। তাকে উৎখাত করতে গেলে বিজেপিকে 'জাজমেন্ট ডে'-র মুখোমুখি হতে হবে বা রসাতলে যাবে গেরুয়া শিবির বলে ভবিষ্যদ্বাণীও করে বসলেন।

কর্নাটকের জেডিএস-কগ্রেস জোট সরকারকে ফেলে দিতে বিজেপি বেআইনি পথ নিচ্ছে বলে অভিযোগ কুমারস্বামীর। তাঁদের সাসংদদের বিজেপি 'পাচার' করে দিচ্ছে বলে দাবি করেন বিধানসভায়। এরপরই তিনি বলেন, তাঁর একটাই স্বান্ত্বনা, জাজমেন্ট ডে-তে সবাইকেই ঈশ্বরের বিচারের মুখোমুখি হতে হবে। তখন কোনও আইনজীবী, কোনও মিথ্যা, কোনও ছলনা চলবে না। পরে তিনি আরও দাবি করেন কংগ্রেস-জেডিএস জোট নাকি ঈশ্বর গড়ে দিয়েছেন। তিনি চেয়েছেন বলেই কুমারস্বামী মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন।

তবে আরও অদ্ভূত অভিযোগ উঠেছে তাঁর ভাই এইচডি রেভান্নার বিরুদ্ধে। আস্থাভোটের প্রথম দুইদিনই তাঁকে দেখা যায় গলায় বিশে। কিছু বিশেষ মালা পরে, খালি পায়ে বিধানসভায় হাজির হতে। বিজেপির অভিযোগ কুমারস্বামী সরকারকে রক্ষা করতে রেভান্না কালাজাদুর আশ্রয় নিচ্ছেন।

এই অভিযোগ অস্বীকার করে কুমারস্বামী দাবি করেছেন, ঈশ্বর ছাড়া তাঁর ভাই দিনই শুরু করতে পারেন না। তিনি জানিয়ছেন, প্রতিদিনই সকালে তিনি ঘুম থেকে উঠেই মহালক্ষ্মী মন্দিরে যান। সেখানকার পুরোহিত তাঁকে একটি করে এলাচের মালা দেন। সেখান থেকে রেভান্না যান আনজানেয়া বা কালী মন্দিরে। সেখানকার পুরোহিত দেন লেবু। সেইসব লেবু, এলাচের মালা নিয়েই বিধানসভায় আসেন কর্নাটকের পিডব্লুডি মন্ত্রী। বিজেপি নেতারা কি মন্দিরে যান না, প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছেন কুমারস্বামী।