অর্থনীতিতে ভারতে এখন মন্দা চলছে। ভারত সরকার  অর্থনীতিতে মন্দা চলার বিষয়টি বর্তমানে স্বীকার করে নিয়েছেন অর্থনীতিতে নোবেলজয়ী অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়। এই পরিস্থিতিতে ভারতে ধনী ব্যক্তিদের সম্পত্তির পরিমাণ ক্রমেই বেড়েই চলেছে। সম্প্রতি একটি রিপোর্টে দেখা গিয়েছে, ধনী ব্যক্তিদের সংখ্যার ভিত্তিতে ভারত এখন পঞ্চম স্থানে রয়েছে।  ২০০২ সাল থেকে ২০১৯ সালের মধ্যে ধনী ব্যক্তিদের সম্পত্তির পরিমাণ ১২.৬ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলারে পৌঁছে গিয়েছে। 

একটি রিপোর্টে দেখা গিয়েছে, ভারতে প্রাপ্তবয়স্কদের সম্পদের পরিমাণ ২০০০-২০১৯ সালের মধ্যে গড়ে বার্ষিক ১১ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। অন্য দিকে, ২০১৯ সালের মাঝামাঝি সময় পর্যন্ত মধ্যবিত্তদের সম্পত্তির পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে ১৪,৫৬৯ মার্কিন ডলার।  রিপোর্টে জানানো হয়েছে, ব্যক্তিগত সম্পত্তিতে ভারতের আধিপত্য রয়েছে। ভারতের নাগরিকরা মূলত ব্যক্তিগত সম্পত্তির ওপর বেশি নজর দিয়ে থাকেন।  রিপোর্টে জানানো হয়েছে, ২০০৮ সাল পর্যন্ত ভারতের ব্যক্তিগত সম্পত্তি ব্যাপকহারে বৃদ্ধি পেয়েছে। ২০০০ সালে ব্যক্তিগত সম্পত্তি ২,১২৭ মার্কিন ডলার থেকে ২০০৭ সালে পৌঁছয় ৬,৩৭৮ মার্কিন ডলার।  ২০০৮ সাল থেকে ধনী ব্যক্তিদের এই ব্যক্তিগত সম্পত্তির হার কমতে থাকে। ২০০৮ সালে ধনী ব্যক্তিদের ব্যক্তিগত সম্পত্তির হার প্রায় ২৯ শতাংশ কমে যায়।  ২০১৯ সালে  আবার ব্যক্তিগত সম্পত্তি বৃদ্ধি আবার ১২ শতাংশ বেড়ে যায়। 


প্রসঙ্গত, ভারতে বর্তমানে ৮.২৭ লক্ষ প্রাপ্তবয়স্ক রয়েছেন। এর মধ্যে ধনীদের সম্পত্তি বিশ্বের সমস্ত সম্পত্তির এক শতাংশ বলে রিপোর্টে জানানো হয়েছে।  অনুমান করা হয়, ভারতে ৪,৪৬০ জন প্রাপ্তবয়স্কের সম্পত্তির মোট পরিমাণ ৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি।  পাশাপাশি ১,৭৯০ জনের মোট সম্পত্তির পরিমাণ ১০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি বলে রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে।