মাঝ আকাশে খারাপ আবহাওয়ার জের, হতে পারত বড়সড় কোনও দুর্ঘটনা, কিন্তু অল্পের জন্য রক্ষা পেল এয়ার ইন্ডিয়ার দুটি বিমান। ভয়ঙ্কর বজ্রবিদ্যুতের মধ্যে পড়ে যায় এয়ার ইন্ডিয়ার দুটি বিমান। যার ফলে ব্যপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। 

সংবাদ সংস্থা সূত্রের খবর, ১৭ সেপ্টেম্বর সন্ধে সাতটা বেজে আঠাশ মিনিট নাগাদ এয়ার ইন্ডিয়ার এআই৪৬৭ বিমানটি ১৭৪ জন যাত্রী নিয়ে উড়ান হয়। দিল্লি থেকে টেক অফ করে বিমানটির বিজয়ওয়াড়ায় অবতরণের কথা ছিল। দিল্লি থেকে অন্ধ্রপ্রদেশের বিজয়ওয়াড়াগামী এয়ারবাস-৩২০-টি মাঝ আকাশেই প্রবল ঝড়- বজ্রবিদ্যুতের মধ্যে পড়ে যায়।  আর এর ফলে বিমানের কেবিন ক্রুরা যথেষ্ট আহত হয়েছে বলে খবর। এরপর বিমানটি গন্তব্যে পৌঁছানোর পরই তাঁদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসাও করা হয়। যদিও বড় রকমের কোনও ক্ষতির মুখে পড়েনি বিমানটি। 

 

যদিও এয়ারলাইন্স সূত্রে খবর, এই বড়সড় দুর্ঘটনার মুখে পড়েও বিমানের পাইলট এবং কেবিন ক্রুরা এই বিষয়টি ম্যানেজমেন্টকে জানায়নি। একইরকম ঘটনা ঘটে ২০ সেপ্টেম্বর তারিখে। সেদিন এয়ার ইন্ডিয়ার এআই ০৪৮ বিমানটি দিল্লি থেকে ত্রিভান্দ্রম হয়ে কোচি যাচ্ছিল বলে খবর। সেইসময়ে বিমানটি মাঝ আকাশেই একটা বড়সড় দুর্ঘটনার মধ্যে পড়ে বলে খবর। বিমানের অসম চলাচলের কারণে কেবিনে থাকা মালপত্র ফ্লোরের ওপরে পড়ে গিয়েছিল।

বিমানের কয়েকজন ক্রুও সামান্য আহত হয়েছেন বলে খবর। তবে সেই বিমানের ১৭২ জন যাত্রী সুস্থ রয়েছেন বলেই খবর। এরপর কোচি বিমানবন্দরে অবতরণের পর বিমানের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়। তবে প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে যে পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।