জম্মু ও কাশ্মীরের বুকে ফের জঙ্গি ধরতে অভিযান। গোপনে পাওয়া এক খবরের ভিত্তিতে এই অভিযান চালায় সিআরপিএফ, ৫০ রাষ্ট্রীয় রাইফেলস এবং জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশ। পরে টুইট করে আইজিপি কাশ্মীর-এর দফতর থেকেও এই অভিযানের কথা জানানো হয়। জানা গিয়েছে, রাতভর গুলির এই লড়াইয়ে ২ জঙ্গির মৃত্যু হয়েছে। জখম এক আধা-সেনা জওয়ান। 

গোপন সূত্রে আধাসেনা এবং পুলিশের কাছে জঙ্গি আত্মগোপনের খবর আসে। এই গোপন সূত্রে নাকি দাবি করা হয় পুলওয়ামা জেলার অবন্তিপোরায় এই জঙ্গিরা আত্মগোপন করে আছে। এরপরই অভিযানে নামে সিআরপিএফ, ৫০ রাষ্ট্রীয় রাইফেলস এবং জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশ। অবন্তিপোরার সাম্বুরা এলাকাকে ঘিরে ফেলে নিরাপত্তারক্ষীরা। আধাসেনা এবং পুলিশের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, এলাকা ঘিরে ফেলার কিছুক্ষণের মধ্যেই বাহিনীকে লক্ষ্য করে গুলি ছুটে আসতে থাকে। রাতভর  লড়াই-এ দুই জনের দেহ উদ্ধার হয়। এদের সাজপোশাক এবং তাদের দেহের কাছে উদ্ধার অত্যাধুনিক সংক্রিয় আগ্নেয়াস্ত্র দেখে এরা আত্মগোপনকারী জঙ্গি দলের সদস্য বলেই মনে করা করছে বাহিনী। সেই মর্মে জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশ একটিও টুইটও করে। সেই সঙ্গে ওই টুইটেই জানানো হয়েছে যে জঙ্গিদের পরিচয় শনাক্ত-এর কাজ চলছে। 

 

সূত্রে পাওয়া খবর অনুযায়ী, এই অভিযানে এক জওয়ান জখম হয়েছেন। তাঁর গুলি লেগেছে। তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। আপাতত তাঁর অবস্থা স্থিতিশীল বলে জানানো হয়েছে। অবন্তিপোরায় যে জঙ্গিদের সঙ্গে গুলির লড়াই চলছে তা এইটি টুইটে স্বীকারও করে নেয় জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশ।