উত্তর বঙ্গোপসাগরে তৈরি হয়েছে নিম্নচাপ। আর এই  নিম্নচাপের প্রভাবে বুধবার  গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর।  পাশাপাশি বাতাসে জলীয় বাষ্প বেশি থাকায় আর্দ্রতা জনিত অস্বস্তিও থাকবে। 

হাওয়া অফিস জানিয়েছে নিম্নচাপের প্রভাবে উপকূলের জেলাগুলোতে ঝোড়ো হাওয়া বইবে। দিঘা, মন্দারমনি সহ সমুদ্রসৈকতে সেজন্য সর্তকতা জারি করা হয়েছে। বুধ ও বৃহস্পতিবার মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধাক্ষা জারি হয়েছে।

হাওয়া অফিস বলছে বুধবার  দক্ষিণবঙ্গের  সব জেলাতেই বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হবে। কলকাতা ও সংলগ্ন এলাকাতেও বজ্রবিদ্যুৎ সহ দু-এক পশলা হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হবে । বিক্ষিপ্তভাবে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান,  হাওড়া এবং হুগলি জেলায়। বৃহস্পতিবারও রাজ্যের পশ্চিমের জেলাগুলিতে বিক্ষিপ্তভাবে ভারি বৃষ্টির পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। পশ্চিম মেদিনীপুর ঝাড়গ্রাম বাঁকুড়া পুরুলিয়া এই চার জেলায় বৃহস্পতিবার ভারি বৃষ্টির সম্ভাবনা। তবে শুক্রবার থেকে আবহাওয়ার উন্নতি হবে।

তবে উত্তরবঙ্গে ভারি বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনা নেই বলেই জানাচ্ছে হাওয়া অফিস। যদিও সপ্তাহান্তে বৃষ্টি বাড়তে পারে উত্তরবঙ্গে। এদিকে কলকাতায় এদিন মূলত মেঘলা আকাশ থাকছে। কয়েক পশলা হালকা-মাঝারি এবং দু-এক পশলা ভারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। সকালে শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৫.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। মঙ্গলবার কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩০.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ ৮৩ থেকে ৯৭ শতাংশ। গত ২৪  ঘণ্টায় বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ছিল ২১.৫ মিলিমিটার।

এদিকে বর্ষা জাঁকিয়ে এসে গিয়েছে রাজধানী দিল্লিতে। সকাল থেকেই  দিল্লি ও এনসিআরের বেশ কয়েকটি জায়গায় বৃষ্টি হচ্ছে। বৃষ্টির পাশাপাশি রাজধানীর  আকাশে ঘন মেঘ রয়েছে। বুধবার সকাল থেকে একটানা বৃষ্টির কারণে দিল্লির অনেক রাস্তা জলে জমে গিয়েছে। সেই কারণে  সমস্যায় পড়ছেন সাধারণ মানুষ। 

 

মৌসম ভাবন  দিল্লিতে পরবর্তী দুই থেকে তিন দিন বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দিয়েছে।   কয়েকটি এলাকায় ভারি বৃষ্টির সতর্কতাও জারি করা হয়েছে। এমনকি মঙ্গলবারও দিল্লি সারা দিন মেঘাচ্ছন্ন ছিল এবং কয়েকটি জায়গায় হালকা বৃষ্টি হয়েছে। যার ফলে দিল্লির তাপমাত্রা কমিয়েছে। মঙ্গলবার দিল্লিতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৫  ডিগ্রি সেলসিয়াস,, যা স্বাভাবিকের চেয়ে ১ ডিগ্রি বেশি। রাজধানীতে আর্দ্রতার মাত্রা ছিল ৯৮  শতাংশ।

দিল্লি সংলগ্ন হরিয়ানা, পশ্চিম উত্তরপ্রদেশ এবং রাজস্থানের ভারি বৃষ্টির সতর্কতা জারি করা হয়েছে। আবহাওয়া দফতর মহারাষ্ট্রের উপকূলীয় অঞ্চলেও ভারি বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দিয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় রাজস্থানের অনেক জায়গায় হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

 

 

দেশের বিভিন্ন জায়গায় বর্ষাকালে ভারি বৃষ্টিপাতের প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় জল কমিশন একাধিক রাজ্যে বন্যার সতর্কতা জারি করেছে। এছাড়াও কয়েকটি রাজ্যের পার্বত্য জেলাগুলিতে ভূমিধসের সতর্কতা দেওয়া হয়েছে। কমিশন বলেছে যে ভারি বৃষ্টির কারণে অনেক রাজ্যের জলাশয়ে জলের স্তর বাড়বে।