মুসলিম মহিলাদের মন পেতে তিন তালাকের শিকার হওয়া মহিলাদের সরকারি সুবিধা দেওয়ার কথা ঘোষণা করলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্য়মন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। এদিন তিনি তিন তালাকের শিকার হওয়া মহিলাদের সঙ্গে দেখা করেন। সেখানেই জানান, তিন তালাকের শিকার হওয়া মহিলাদের উত্তরপ্রদেশের রাজ্য সরকার বছরে ৬০০০ টাকা করে ভাতা দেবে। ন্যায় বিচার না পাওয়া পর্যন্ত এই টাকাটা তাঁরা পাবেন বলে জানালেন যোগী।

অনেকেই বলছেন তিন তালাক আইন নিয়ে যে সমালোচনা হয়েছে, তা থামাতেই উত্তরপ্রদেশের রাজ্য সরকার এই পদক্ষেপ নিয়েছিল। তিন তালাক -কে সম্প্রতি কেন্দ্রীয় সরকার আইন করে ফৌজদারি অপরাধ হিসেবে ঘোষণা করেছে। তিন বছর পর্যন্ত কারাদন্ডের সাজা নির্ধারিত হয়েছে।

এরপর অনেকেই অভিযোগ করেছিলেন, এতে করে আরও বিপাকে পড়বেন তিন তালাকের শিকার হওয়া মুসলিম মহিলারা। কারণ জেলে গেলে তাদের স্বামীরা কোনও খোরপোষ দিতে পারবেন না। সেইক্ষেত্রে সংসার চালানোই দায় হয়ে পড়বে তাঁদের। এদিনের ঘোষণা এই ধরণের সমালোচনা থামানোর লক্ষ্যেই করা বলে মনে করা হচ্ছে।

এরপরেও অবশ্য নেটিজেনদের সমালোচনা থামেনি। অনেকেই বলছেন, আজকের বাজারে বছরে ৬০০০ টাকায় কী হয়? এই ঘোষণাকে তাঁরা বলছেন 'রসিকতা'। অপরাধী স্বামীকে তালাক দেওয়ার পরে তাঁদের আয়ের ৫০ শতাংশ স্ত্রীদের দিতে বলা উচিত বলে দাবি উঠেছে। তাঁদের মতে এই স্বল্প ক্ষতিপূরণ কেউই চাইবে না। তাঁদের মতে এইসব কৌতূক না করার থেকে তালাকের বর্তমান আইনটাই ঠিকঠাক প্রয়োগ করার দাবি করেছেন তাঁরা।