নিজেদের হেফাজতে থাকা ৯ জন ভারতীয় নাবিক কে মুক্তি দিল ইরান। জানা গিয়েছে জুলাই এর প্রথমে আটক  এম টি রিয়াহ জাহাজের ১২ জন ভারতীয় নাবিকের মধ্যে ৯ জন কে মুক্তি দিয়েছে সেদেশের সরকার। যদিও এখনও ইরানিয় হেফাজতে বন্দী রয়েছেন ২১ জন ভারতীয়। এদের মধ্যে ১৮ জনই ব্রিটিশ ট্যাঙ্কার স্টেনা ইম্পেরোর নাবিক বলে সরকারি সূত্রে জানা গিয়েছে। জুলাইয়ের তৃতীয় সপ্তাহে আন্তর্জাতিক জলসীমা  লঙ্ঘনের অভিযোগে হরমুজের কাছে ইরানের রেভল্যুশনারী গার্ডের হাতে আটক হয় ব্রিটিশ জাহাজটি। 

বৃহস্পতিবার ভারতীয় দূতাবাসের তরফ থেকে যোগাযোগ করা সম্ভব হয় আটক ভারতীয় নাবিকদের সঙ্গে। মনে করা হচ্ছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ইরানের চাপান উতরের ফলেই ইসলামিক দেশটির রাষ্ট্রীয় কোপে পড়েছে জাহাজ দুটি। 

এদিকে জানা গিয়েছে জিব্রাল্টারের কাছে ইরানীয় একটি জাহাজকে আটক করে সে দেশের পুলিশ।  গ্রেস ১ বলে আটক ওই ইরানীয় জাহাজ টিতে ২৪ জন ভারতীয় নাবিক রয়েছেন। বিদেশ মন্ত্রক সূত্রে খবর আটক ২৪ জন নাবিকের সঙ্গেই দূতাবাসের মাধ্যমে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়েছে এবং তাঁরা প্রত্যেকেই সুস্থ রয়েছেন। বিদেশ মন্ত্রক সূত্রে জানা গিয়েছে লন্ডনের ভারতীয় হাই কমিশন অতি দ্রুত পদক্ষেপ নিচ্ছে যাতে আটক ২৪ জন নাবিককেই দ্রুত দেশে ফেরানো যায়। 

বিদেশ মন্ত্রকের দায়িত্বপ্রাপ্ত রাষ্ট্রমন্ত্রী ভি মুরালিধরন জানিয়েছেন লন্ডন হাই কমিশনের একটি দল জিব্রাল্টারে  আটক নাবিকদের সঙ্গে দেখা করেছে। তিনি আরও জানিয়েছেন যে প্রত্যেক ভারতীয়ই অত্যন্ত সাহসিকতার সঙ্গে পরিস্থিতির মোকাবিলা করছেন। ভারত সরকার তাঁদের মুক্ত করার জন্য দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ করবে বলেও তিনি জানান। 

বিদেশ মন্ত্রকের মুখপত্র রবিশ কুমার জানিয়েছেন যে ইরানে আটক ভারতীয় নাবিকদের সঙ্গেও সেদেশের ভারতীয় দূতাবাসের একটি দল দেখা করেছে। ইরান সরকারের সঙ্গেও তাঁদের মুক্তির ব্যাপারে বেশ কয়েকবার কথা হয়েছে বলেও দাবি করেন রবিশ কুমার। তিনি আশাবাদী যে অতি দ্রুত সমস্যার সমাধান করা সম্ভব হবে।