যৌন নিপীড়নের অভিযোগে ২০১৮ সালে কলঙ্কিত হয়েছিল সুইডিশ অ্যাকাডেমি। আর সেই বিতর্ক এবং কেলেঙ্কারিতে গত দুই বছর সাহিত্যের নোবেল পুরস্কার দেওয়া বন্ধ রাখা হয়েছিল। এবার আবার দেওয়া শুরু হল। পেলেন মার্কিন মবিলা কবি লুইস গ্লুক। বৃহস্পতিবার স্টকহোমে সুইডিশ অ্যাকাডেমির স্থায়ী সচিব ম্যাটস মাম এই পুরষ্কার ঘোষণা করেন।

নোবেল পুরস্কারের অফিশিয়াল টুইটার হ্যান্ডেলে লেখা হয়েছে লুইস গ্লুকের 'অভ্রান্ত কাব্যিক কণ্ঠের উগ্র সৌন্দর্যে ব্যক্তি অস্তিত্বকে সর্বজনীন করে তোলে'। আর এই কাব্যিক কন্ঠের স্বীকৃতি হিসাবেই তাঁকে সর্বোচ্চ সাহিত্যিক পুরস্কারে ভূষিত করা হল।

লুই গ্লুকের লেখালেখি শুরু করেছিলেন গত শতাব্দীর ষাটের দশকের শেষভাগে। ১৯৬৮ সালে তাঁর প্রথম কবিচতার বই 'ফাস্টবর্ন' প্রকাশিত হয়েছিল। প্রথম কাব্যগ্রন্থই সমালোচকদের ব্যাপক প্রশংসা পেয়েছিল। আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। দ্রুতই সমসাময়িক মার্কিন সাহিত্যের অন্যতম প্রধান কবি হিসাবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন গ্লুক। তাঁর কবিতার বইয়ের সংখ্যা একডজনেরও বেশি। এছাড়া কবিতার উপর লেখা বিভিন্ন বিষয়ের নিবন্ধ সংগ্রহও প্রকাশিত হয়েছে।

নোবেল কমিটি এই সপ্তাহে ইতিমধ্যেই চিকিত্সা, পদার্থবিজ্ঞান এবং রসায়নের জন্য নোবেল পুরস্কার প্রাপকদের নাম ঘোষণা করেছে। সাহিত্যের পর বাকি রইল শান্তি ও অর্থনীতির পুরষ্কারপ্রাপকদের নাম ঘোষণা।