করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক নিয়ে যখন গোটা বিশ্ব অপেক্ষা করে বসে রয়েছে তখন আরও একবার জল্পনা বাড়িয়ে দিলেন মাইক্রোসফটের কর্ণধার বিল গেটস। তিনি আবারও বললেন আগামী বছর প্রথম দিকেই হাতে পাওয়া যেতে পারে করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক। পাশাপাশি তিনি আরও বলেছেন করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক খুব দ্রুততার সঙ্গেই তৈরি করা হবে। পাশাপাশি তিনি আরও বলেন আগামী দিনে মহামারি মোকাবিলার জন্য অবশ্যই প্রস্তুত থাকতে হবে। 

গ্র্যান্ড চ্যালেঞ্জস-এর বার্ষিক অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখার সময় বিল গেটস আরও একবার ভারতের প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, করোনাভাইরাসের লড়াইয়ে ভারতের গবেষণা আর উৎপাদন ক্ষমতা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। তিনি আরও বলেন ভারতের ভূমিকা অত্যান্ত অনুপ্রেঢ়়নামূলক। কারণ গত দুই দশক ধরে ভারত জনস্বাস্থ্য উন্নতির জন্য একাধিক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। আর সেই কারণেই ভারত প্রতিষেধক নিয়ে গবেষণা আর উৎপাদনে নেতৃত্ব দিতে পারে। ভারত প্রচুর পরিমাণে করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক তৈরি করতে সক্ষম হবে বলেও আশা প্রকাশ করেছেন বিল গেটস। বিল গেটস পিছিয়ে পড়ে দেশগুলি প্রতিষেধক প্রদান কর্মসূচির ওপর জোর দিয়েছেন। আর সেই কারণেেই হাত মিলিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সঙ্গে। 


এদিন বক্তব্য রাখান সময় বিল গেটস বলেন করোনাভাইরাস মহামারির আকার নেওয়ায় তার প্রভাব পড়েছে গোটা বিশ্বে। বিশ্ব অর্থনীতিও যথেষ্ট চাপের মধ্যে রয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলি। অর্থনৈতিক সংকট মানসিক চাপ ফেলছে বলেও তিনি মনে  করেন। তবে প্রতিষেধকের জন্য আরও গবেষণার ওপরেই জোর দিয়েছেন বিল গেটস। গ্র্যান্ড চ্যালেঞ্জস-এর বার্ষিক সভা ১৯ অক্টোবর শুরু হয়েছে। এই সভা চলবে ২১ অক্টোবর পর্যন্ত।