সাংবাদিক সম্মেলনে বসে কাঁচা মাছ চিবিয়ে খেলেন শ্রী লঙ্কার প্রাক্তন মন্ত্রী দিলীপ ওয়েদারাচ্চি। করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে সামুদ্রিক খাবারের বিক্রয় অনেকটাই কমে গেছে এই দেশে। সামুদ্রিক খাবারের বিক্রি বাড়াতেই তিনি প্রকাশ্যে কাঁচা মাছ খেয়েছেন। চলতি বছর অক্টোবরে শ্রীলঙ্কার কলম্বোর সেন্ট্রাল ফিস মার্কেট এলাকা ছিল করোনাভাইরাসের একটি অন্যতম হচস্পট। সেই কারণে তারপর মাছের বিক্রি ধীরে ধীরে কমছিল। বর্তমানে তা তলানিতে এসে ঠেকেছে। 


গত ১৭ নভেম্বর শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন মন্ত্রী মাছের বিক্রি বাড়ানোর উদ্যোগ গ্রহণ করে একটি সাংবাদিক বৈঠক করেছিলেন। সেই বৈঠকে তিনি ঝুলি থেকে একটি কাঁচা মাছ বার করে তাতে কামড় দেন। তারপরেই সকল মানুষের কাছে মাছ খাবার আহ্বান জানান। তিনি বলেন মাছ খেলে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঘটবে না। পাশাপাশি তিনি বলেন, এদেশের মানুষ প্রায় মাছ খাওয়া বন্ধ করে দিয়েছেন। তাতে রীতিমত ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন মৎসজীবীরা। তাই তিনি কাঁচা মাছে কামড় দিয়ে বলেন, ভয় না পেয়ে মাছ খান। দিলীপ ওয়েদারাচ্চি শ্রীলঙ্কার গুরুত্বপূর্ণ রাজনীতিবিদ। সংসদের সদস্য। ২০১৯ সাল পর্যন্ত তিনি ছিলেন মৎসমন্ত্রী। 

 

কলম্বোর মাছ বাজার ছিল ছিল শ্রীলঙ্কার করোনার হটস্টপ। সেখান থেকেই গোটা দেশে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছ সেই কারণেই মাছে আতঙ্ক স্থানীয়দের। স্থানীয়রা মাছ কেনা ও খাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে। প্রতিদিন নষ্ট হচ্ছে হাজার হাজার মাছ। শ্রীলঙ্কায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৮ হাজারের বেশি।