ভারতের থেকে ব্রহ্মস মিসাইল কিনতে চলেছে ফিলিপাইন। আগামী বছর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও ফিলিপাইনের রাষ্ট্রপতি রডরিগো দুতার্তের মধ্যে যে শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে সেখানেই এই বিষয়টি নিয়ে চুক্তি স্বাক্ষরিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ভারতের থেকে এই প্রথম ব্রহ্মস মিসাইল কিনতে চলছে দক্ষিণ এশিয়ার কোনও দেশ। ভারত ও রাশিয়ার যৌথ উদ্যোগে তৈরি হয়েছে ব্রহ্মস মিসাইল। 


ভারত যাতে ব্রহ্মস মিসাইল ফিলিপাইনে বিক্রি করতে পারে তারজন্য কেন্দ্র সরকারের একটি দল চলতি বছর ডিসেম্বর মাসে ম্যানিলা সফরে যাবে। চুক্তিপত্র ও প্রয়োজনীয় বিষয়গুলি খতিয়ে দেখবে সংশ্লিষ্ট দলটি। সংশ্লিষ্ট দলটি জানিয়েছে কিছু ছোটখাটো সমস্যা রয়েছে। যেগুলি প্রধানমন্ত্রীর সফরের আগেই মিটিয়ে ফেলা সম্ভব হবে। আর মিসাইলটি সরবরাহ করার ক্ষেত্রে আর কোনও সমস্যা থাকবে না। যদিও এখনও পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও রাষ্ট্রপতি দুতার্তের মধ্যে বৈঠকের চিক্তির দিনক্ষণ এখনও ঠিক হয়নি। গত নভেম্বরে বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর ও ফিলিপাইনের বিদেশ মন্ত্রীর সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়েছিল। কিন্তু সেই সময় কিছু সমস্যা থাকা চুক্তিতে সই হয়নি। গতবছর ডিসেম্বর মাস থেকেই ফিলিপাইনকে ব্রহ্মস বিক্রির পরিকল্পনা গ্রহণ করেছিল ভারত। 

ফিলিপাইনেত হাতে যদি ব্রহ্মস মিসাইল যায় তাহলে তা হবে সেই দেশটির সেনাবাহিনীর প্রথম ভূমি ভিত্তিক ক্ষেপনাস্ত্র। অন্যদিকে সূত্রের খবর ভারত-রাশিয়ার যৌথ উদ্যোগে তৈরি হওয়া এই মিসাইলটির পরিধি ধীরে ধীরে বাড়ান হচ্ছে। যা নিয়ে বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশ উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। পাশাপাশি মিশরের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে ভারত ও রাশিয়া তাদের তৈরি মিলাইলটি তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলির কাছে বিক্রির পরিকল্পনা  গ্রহণ করেছে। প্রায় ৫০০ কোলিমোটার দৈর্ঘ্যের সুপারসনিক ক্রুজ মিসাইলটি নিয়ে ফিলিপাইনের সেনা বাহিনী একাধিকবার পরীক্ষা করেছে। সূত্রের খবর মিসাইলের যন্ত্রপতি আগামী ২০২৪ সালের মধ্যে ফিলিপাইনে সরবরাহ করা যাবে। প্রতিরক্ষাক্ষেত্র ভারত ফিলিপাইনের সগযোগী হতে চাইছে। প্রতিরক্ষা সামগ্রী কেনার জন্য ভারত এই দেশটিকে  ১০০ মিলিয়ন ডরাল ঋণ দেওয়ার দিকে ঝুঁকছে।