রবিবার মন কি বাত অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী অভিনন্দন জানালেন লাতিন আমেরিকার ছোট্ট দেশ সুরিনামে-র নবনির্বাচিত রাষ্ট্রপতি চন্দ্রিকাপ্রসাদ সন্তোখি-কে। ফুটবলের দৌলতে ভারতীয় নাগরিকদের কাছে লাতিন আমেরিকা মানেই ব্রাজিল, আর্জেন্টিনা, উরুগুয়ে-র মতো বড় দেশগগুলি। অনেকে সুরিনামে দেশটির নামই শোনেননি। মন কি বাত অনুষ্ঠানে হঠাৎ তাঁকে কেন অভিনন্দন জানালেন প্রধানমন্ত্রী? কে এই চন্দ্রিকাপ্রসাদ সন্তোখি?

গত ১৬ জুলাই লাতিন আমেরিকার এই দেশের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন চন্দ্রিকাপ্রসাদ সন্তোখি। প্রথমবার একজন ভারত বংশোদ্ভূত হিসাবে লাতিন আমেরিকার কোনও দেশের প্রেসি়ডেন্ট নির্বাচিত হয়ে তিনি ইতিহাস রচনা করেছেন। এখানেই শেষ নয়, শপথ অনুষ্ঠানে তাঁর হাতে ধরা ছিল বেদ। আর তিনি সেই দেশের প্রেসিডেন্ট হিসাবে শপথ নিয়েছেন  বিশুদ্ধ সংস্কৃত ভাষায়।

প্রেসিডেন্ট হওয়ার আগে একসময়ে ডাচ উপনিবেশ সুরিনামে-র পুলিশ প্রধান ছিলেন চন্দ্রিকাপ্রসাদ সন্তোখি। সেখানকার এক গ্রামাঞ্চলে তিনি বড় হয়েছিলেন। নয়টি সন্তানের পরিবারে তিনিই সবার ছোট। স্কুলের শিক্ষা শেষ করে তিনি নেদারল্যান্ডস পুলিশ একাডেমি-তে চার বছর পড়াশোনা করেন। ১৯৮২ সালে সুরিনামে-তে ফিরে এসে পুলিশবাহিনীতে যোগ দিয়েছিলেন। ১৯৯১ সালে তিনি সেখানকার পুলিশ কমিশনার নিযুক্ত হয়েছিলেন।

গত ২৫ মে সেই দেশে সাধারণ নির্বাচনে পরাজিত হয় ন্যাশনাল ডেমোক্র্যাটিক পার্টি। চন্দ্রিকাপ্রসাদ সন্তোখি-র প্রগ্রেসিভ রিফর্ম পার্টি বা ভিএইচপি, জেনারেল লিবারেশন অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট পার্টি (এবিওপি), ন্যাশনাল পার্টি অফ সুরিনামে (এনপিএস) এবং পার্টজাজাহ লুহুর (পিএল) এই চার দল মিলে জোট গড়ে ক্ষমতায় আসে। আর এই জোটের নেতা হন চন্দ্রিকাপ্রসাদ সন্তোখি। সুরিনামে সংসদের ৫১ টি আসনের মধ্যে জোটের হাতে রয়েছে ৩৩ টি আসন।

কোনও বিদেশি রাষ্ট্রনেতা বেদ হাতে ধরে সংস্কৃত ভাষায় শপথ নিচ্ছেন, এই দৃশ্য ভারতীয় সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোড়ন ফেলে দিয়েছিল। এদিন সেইসব কোটি কোটি ভারতীয়ের হয়ে সুরিনামে-র ভারতীয় বংশোদ্ভূত প্রেসিডেন্ট চন্দ্রিকাপ্রসাদ সন্তোখি-কে শুভেচ্ছা জানালেন নরেন্দ্র মোদী।