মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় সময় তৃতীয় বার্ষিক ব্লুমবার্গ নিউ ইকোনমি ফোরাম-এ ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কোভিড-১৯ মহামারির কারণে বর্তমানে সারা পৃথিবী জুড়েই মুখ থুবরে পড়েছে অর্থনীতি। তার সঙ্গে তাল মিলিয়েই এই বছর, কীভাবে বৈশ্বিক অর্থনীতিকে ফের জাগিয়ে তোলা যায় তাই নিয়েই আলোচনা করবে এই ফোরাম। সেইসঙ্গে বৈশ্বিক অর্থনীতির জন্য একটি  ভবিষ্যতের চলার পথ তৈরির বিষয়েও আলোচনা করবেন ফোরামের নেতারা

২০১৮ সালে মাইকেল ব্লুমবার্গ 'ব্লুমবার্গ নিউ ইকোনমি ফোরাম' প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। সময়ের পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে বিশ্ব অর্থনীতিকে বিভিন্ন কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হয়। এই ফোরামের উদ্দেশ্য, বিভিন্ন রাষ্ট্র ও শিল্প নেতাদের মধ্যে কথোপকথনের মধ্য দিয়ে সেইসব সমস্যার কার্যকর সমাধান খোঁজা। প্রথমবার এই ফোরামের বার্ষিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছিল সিঙ্গাপুরে। গত বছর দ্বিতীয় বার্ষিক ফোরামের আয়োজন করা হয়েছিল চিনের রাজধানী বেজিং-এ। বৈশ্বিক অর্থনীতির সঙ্গে জড়িত বিভিন্ন বিষয় - বৈশ্বিক অর্থনৈতিক ব্যবস্থাপনা, বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, প্রযুক্তি, নগরায়ন, মূলধন বাজার, জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে আলোচনা হয় এই ফোরামে।

সম্প্রতি বিশ্বব্যাপী অর্থনীতির পূর্বাভাসকারী সংস্থা, 'অক্সফোর্ড ইকোনমিকস' জানিয়েছে, কোভিড মহামারির হতাশা কাটিয়ে প্রত্যাশিত গতির থেকে অনেক দ্রুত ঘুরে দাঁড়াচ্ছে ভারতীয় অর্থনীতি। বর্তমানে ভারতে মুদ্রাস্ফীতি গত কয়েক বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ হলেও, ২০২১ সালের শুরু থেকেই অর্থনীতির চাকা উল্টো দিকে ঘুরতে শুরু করবে বলে ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে বলে দাবি করেছে এই সংস্থা। কারণ, মুদ্রাস্ফীতির পাশাপাশিই নীচের অংশ থেকে শক্তিশালী অর্থনৈতিক কার্যক্রমের তথ্য এসেছে তাদের হাতে।