চিন সফরে গিয়েছেন কেন্দ্রীয় বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। তিন দিনের চিন সফরে গিয়ে চিনের উপরাষ্ট্রপতি ওয়াং কিশানের সঙ্গে দেখা করেন বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। এদিন চিন সফরে এসে এস জয়শঙ্কর বলেন, সাম্প্রতিক বিশ্বের পরিস্থিতি যখন অনিশ্চয়তার মুখে তখন, ভারত চিন সম্পর্ক স্থিতিশীলতার কারণ হয়ে ওঠা উচিত। 

রবিবার বেজিং-এ পৌঁছোন তিনি। সেখানে চিনের বিদেশমন্ত্রী ওয়াং ইয়ের সঙ্গেও একটি বৈঠক করেন তিনি। প্রসঙ্গত, চিনা রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং-এর কাছে অত্যন্ত ভরসাযোগ্য হিসাবেই পরিচিত জয়শঙ্কর। এদিন উপরাষ্ট্রপতি  ওয়াং কিশানের সঙ্গে বৈঠকে জয়শঙ্কর জানান, দুই দেশ দুবছর আগেই একটি ঐক্যমত্যে এসে উপনীত হন যে, সাম্প্রতিক বিশ্ব পরিস্থিতি যেভাবে অনিশ্চয়তার দিকে এগোচ্ছে তখন ভারত-চিন সম্পর্কই স্থিতিশীলতার কারণ হয়ে ওঠা উচিত। 

প্রসঙ্গত, জম্মু ও কাশ্মীরকে বিশেষ মর্যাদা প্রদানকারী ৩৭০ বাতিল করা নিয়ে ভারতের সিদ্ধান্তের আগেই কেন্দ্রীয় বিদেশমন্ত্রীর চিন সফরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছিল। নরেন্দ্র মোদী সরকারের তরফে জম্মু ও কাশ্মীর এবং লাদাখ-কে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসাবে চিহ্নিত করার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর এই প্রথম কোনও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী চিন সফরে গেলেন। 

প্রসঙ্গত, গত বছর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং চিনা রাষ্ট্রপতির মধ্যে হওয়া উহান শীর্ষ সম্মেলনই ছিল দু'দেশের মধ্যে প্রথম ঘরোয়া সম্মেলন যা ডোকলামকে কেন্দ্র করে চলা ৭৩ দিনের সামরিক অবস্থানকে একটি শান্তিপূর্ণ জায়গায় নিয়ে গিয়েছিল এবং যার ফলে দু'দেশের মধ্যে সম্পর্কও অনেকটা স্বাভাবিক হয়েছিল।

তিনদিনের এই সফরে,বিদেশমন্ত্রী জয়শঙ্কর চলতি  বছরের শেষের দিকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে আনুষ্ঠানিক বৈঠকে সামিল হওয়ার জন্য চিনের রাষ্ট্রপতির ভারত সফরের ব্যবস্থা যাতে নিশ্চিত করা যায় সেই বিষয়েও আলাপ- আলোচনার মাধ্যমে যাবতীয় সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে।