আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে ফের আত্মঘাতী হামলা। এখনও পর্যবন্ত এই হামলায় ৫ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া যাচ্ছে।  সরকার পরিচালিত সেনা একাডেমিতে এবার হামলা চালায় জঙ্গিরা। 

চলতি মাসে এখনও পর্যন্ত এই সবচেয়ে বড় জঙ্গি হামলা বলে দাবি করা হয়েছে। এদিনের হামলায় মৃতদের মধ্যে রয়েছেন ৩ জন সেনাকর্মী। আহতের সংখ্যা ১২। এদের মধ্যে ৫ জন সাধারণ মানুষ। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের মুখপাত্র নসরত রাহিমি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

জানা যাচ্ছে মঙ্গলবার সকালে মার্শাল ফাহিম মিলিটারি আকাডেমির গেটের সামনে এই আত্মঘাতী বিস্ফোরণ ঘটায় জঙ্গিরা। বিস্ফোরণে কেঁপে ওছে আশেপাশের বাড়িগুলিও। এরপরেই দুই তরফের মধ্যে গোলাগুলি শুরু হয়। ধোঁয়ায় ঢেকে যায় গোটা চত্বর। এখনও পর্যন্ত এই হামলার দায় স্বীকার করেনি কোনও জঙ্গিগোষ্ঠী। 

আফগানিস্তানে ইউরোপের আদলে এই সামরিক বিশ্ববিদ্যালয়টি তৈরি করা হয়েছে। এখানে যাঁরা প্রশিক্ষণ দেন তাঁরা বেশিরভাগই ইউরোপের বিভিন্ন দেশ থেকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। ফলে এটি বরাবরই জঙ্গি হামলার শিকার হয়ে এসেছে। এর আগে গত বছর মে মাসে এই বিশ্ববিদ্যালয়ে হামলা চালিয়েছিল ইসলামিক স্টেট জঙ্গি গোষ্ঠী। এখনও পর্যন্ত  মঙ্গলবারের হামলার দায় কোনও গোষ্ঠী না নিলেও  দেশটিতে সংঘটিত অধিকাংশ জঙ্গি হামলার পিছনেই রয়েছে  তালিবান ও ইসলামিক স্টেট জঙ্গি গোষ্ঠী। 

এর আগে গতবছর নভেম্বরে কাবুলে একটি বড়সড় জঙ্গি হামলা ঘটেছিল। বিদেশি নিরাপত্তারক্ষীদের কনভয় লক্ষ্য করে এই হামলা চালান হয়। যাত প্রাণ হারান কমপক্ষে ১২ জন।