বেঁচে থাকার জন্য অক্সিজেন যে অপরিহার্য তা মানুষ জেনেছে কয়েক শতাব্দী আগে। কিন্তু কীভাবে মানব দেহের কোষগুলি অক্সিজেন অনুভব করে এবং অক্সিজেনের বিভিন্ন পরিমানের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নেয়, তা এতদিন অজানাই ছিল। এই প্রশ্নের উত্তর দিয়েই এই বছর মেডিসিনে নোবেল পুরস্কার জিতে নিলেন তিনজন বিজ্ঞানী।

উইলিয়াম জি কেইলিন জুনিয়র, স্যার পিটার জে ব়্যাটক্লিফ, গ্রেগ এল সেমেঞ্জা তিনজনেই বিভিন্ন মাত্রার অক্সিজেনের প্রতিক্রিয়ায় জিনের ক্রিয়াকলাপকে নিয়ন্ত্রণ করে এমন আণবিক কার্যকারিতাকে সনাক্ত করেছেন। আর এই কারণেই এই তিন বিজ্ঞানীকে এই বছর সম্মানিত করা হল।

নোবেল কমিটি থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এই তিন বিজ্ঞানীর আবিষ্কার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। অ্যানিমিয়া, ক্যানসার-সহ বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধে এই আবিষ্কার নতুন পথের সন্ধান দেবে।

১৯০১ সালেই মেডিসিন বা শারীরবিদ্যা বিভাগে নোবেল পুরস্কার দেওয়া শুরু হয়েছিল। এই বছর এই তিন বিজ্ঞানী ১১০তম পুরস্কার পাচ্ছেন। প্রতি বছরই মেডিসিন বিভাগেই সবার প্রথম নোবেল পুরস্কার প্রাপকদের নাম ঘোষণা করা হয়। সামনের কয়েকদিনে একে একে ফিজিক্স, কেমিস্ট্রি, সাহিত্য, শান্তি ও অর্থনীতিতে পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হবে।