ভারত-আফগানিস্তান সম্পর্ক আরও দৃঢ় করার অঙ্গীকার করেছেন আফগানিস্তানের শান্তি আলোচক আবদুল্লাহ আবদুল্লাহ। পাঁচ দিনের সফরে মঙ্গলবারই ভারতে এসেছেন তিনি। বৃহস্পতিবার কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে। বিদেশ মন্ত্রকের তরফে সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে জানান হয়েছে ভারত আর আফগানিস্থান সম্পর্ক আর মজবুত করার পক্ষেই তিনি সওয়াল করেছেন। পাশাপাশি আগামী দিনেও ভারত যাতে তাদের পাশে থাকে সেই বিষয়ে প্রতিশ্রুতিও চেয়েছেন তিনি। আফগানিস্তানে শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের পর এটাই তাঁর প্রথম ভারত সফর। 


পাঁচ দিনের ভারত সফরে বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন। এই দিনই তাঁর ইনস্টিটিউট অব ডিফেন্স স্টাডিজ অ্যান্ড অ্যানালাইসিসের উদ্যোগে একটি অলোচনা সভায় অংশ নেওয়ার কথা। জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল সহ কেন্দ্রীয় সরকারের নিরাপত্তা আধিকারিকদের সঙ্গে তাঁর বৈঠকের কথা রয়েছে। আগামিকাল তিনি বৈঠক করবেন বিদেশ মন্ত্রী এস জয়শঙ্করের সঙ্গে।  আফগানিস্তানে শান্তি ফেরানোই তাঁর মূল লক্ষ্য।  আর লক্ষ্যে সাফল্যের জন্য ভারতের সহযোগিতা চেয়েছেন তিনি। আফগানিস্তানে শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের পর এটাই তাঁর প্রথম ভারত সফর। 

 

ফগানিস্তানের হাই কাউন্সিল অব রিকনসিলেশনের চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আবদুল্লাহ। ভারত সফরের আগে তিনি পাকিস্তানেও গিয়েছিলেন। পাক প্রধানমন্ত্রী ইমনার খান , পররাষ্ট্র মন্ত্রী মাহমুদ কুরেশি আর সেনা প্রধান জেনারেল কামার বাজওয়ারের সঙ্গে বৈঠক করেন। তালিবানিদের হিংসা ছেড়ে উন্নয়নের লক্ষ্যে আরও নমনীয় ভূমিকা গ্রহণের বার্তা দেওয়া হবে বলেই পাক প্রশাসনকে ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনি। কিছুটা হলেও স্পষ্ট করে দিয়েছেন আফগানিস্তানে শান্তি স্থাপন করতে চায় বর্তমান সরকার। অন্যদিকে আফগানিস্তানের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ভারত। আন্তঃ আফগান আলোচনার মধ্যেদিয়ে সংখ্যালঘু ,মহিলা, শিশু ও সমাজের দুর্বল অংশের স্বার্থ সুনিশ্চিত করতে হবে। আফগানিস্তান ও তার পার্শ্ববর্তী এলাকায় হিংসা কমাতে হবে।  অন্যদিকে ২৫ ডিসেম্বরের আগেই আফগানিস্তান থেকে সেনা সরিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে মার্কিন প্রশাসন।