মারণ ভাইরাস করোনা ইতিমধ্যে ছড়িয়ে পড়েছএ বিশ্বের ২২টি দেশে। যার মধ্যে রয়েছে জার্মানি, অস্ট্রেলিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মত প্রথম বিশ্বের দেশগুলিও। ইতিমধ্যে আমেরিকায় সন্ধান মিলেছে ৬ জন করোনা আক্রান্তের। পরিস্থিতি মোকাবিলায় মার্কিন মুলুকে জারি করা হয়েছে স্বাস্থ্যক্ষেত্রে জরুরি অবস্থা। এই অবস্থায় আগামী দুই সপ্তাহের জন্য মার্কিন নাগরিকদের চিনে না যাওয়ার ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে  ট্রাম্প প্রশাসন। খুব শীঘ্রই আমেরিকা থেকে চিনে বিমান পরিষেবা বন্ধ করতে চলেছে একাধিক বিমান সংস্থা। 

 

চিনে করোনা আক্রান্ত হয়ে সরকারি ভাবে মৃতের সংখ্যা ২৫৯। দেশজুড়ে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। ইতিমধ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে চিনের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে ১১,৭০০ মানুষের। পরিস্থিতি যে নিয়ন্ত্রণে আসেনি তা স্বীকার করে নিচ্ছে চিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রকও। 

 

 

করোনা মোকাবিলায় ইতিমধ্যে বিশ্বজুড়ে জরুরী অবস্থা জারি করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা হু। করোনা ক্রমেই মহামারীর আকার ধারণ করায় আগামী ২৫ ফেব্রয়ারি চিনের মাটিতে হতে চলা চিনা মাস্টার্স টুর্নামেন্ট স্থগিত করা হয়েছে। টুর্নামেন্টের আয়োজকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বর্তমান পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এই টুর্মামেন্ট টোকিও অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জনের অংশ ছিল।

টেক জায়েন্ট অ্যাপল, গুগল ও মাইক্রোসফট আপাতত চিনের ভাইরাস আক্রান্ত অঞ্চলে সংস্থার কর্মকাণ্ড বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। চিনের সঙ্গে সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছে রাশিয়া।