শেষ কবে চেন্নাই সুপার কিংস টানা তিনটি ম্যাচ হেরেছে, তা মনে করতে পারছেন না অনেক চেন্নাই ভক্ত। ছয় বছর পরে ফের এই অবিশ্বাস্য ঘটনার সাক্ষী থাকল দুবাই। ২০১৪ সালের আইপিএলের পর আবারও পরপর তিনটি ম্যাচে হারের মুখ দেখতে হল হলুদ বাহিনীকে। মজার ব্যাপার হলো  ২০১৪ সালেও আইপিএলের প্রথম পর্বের আসর বসেছিল সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে। যদিও সেইবার ভারতের মাটিতে তিনটি পরাজয়ের মুখে পড়তে হয়েছিল চেন্নাইকে। যা একেবারেই চেন্নাই সুলভ নয়। তবে ২০১৪ সালের চেন্নাইয়ের সঙ্গে এবারের হলুদ বাহিনীর অনেক মিল আছে। বিশেষত এবারের চেন্নাইয়ের খেলায় সেই নাছোড়বান্দা মনোভাবের যেন কোথায় একটা অভাব ফুটে উঠছে। সানরাইজার্স হায়দরাবাদের কাছে সাত রানের পর সেই বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন চেন্নাই অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনিও।

তিনি ম্যাচ শেষে ইন্টারভিউতে এসে বলেন দীর্ঘদিন পরে তারা টানা তিনটি ম্যাচে হেরেছেন। জয়ে ফিরতে গেলে ক্যাচ ফেলা এবং বোলারদের নো বলের অভ্যাস কাটিয়ে উঠতে হবে বলে তিনি মনে করেন। ম্যাচটিকে যে তারা যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ ভাবে নেননি সেই ভুলের কথাও তিনি উল্লেখ করেছেন। ডেথে তারা আরও ভালো বল করতে পারতেন বলে মনে করেন। সেই সঙ্গে অসংখ্য ক্যাচ মিস এবং প্রিয়ম গর্গ ও অভিষেক শর্মার ৭ ওভারে ৭৭ রানের পার্টনারশিপই যে ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছেন তা তিনি উল্লেখ করেন। পরে ব্যাটিং করতে নেমে ব্যর্থ সিএসকে টপঅর্ডার। ধোনি, জাদেজা ও ক্যারান শেষদিকে চেষ্টা করলেও তা যথেষ্ট ছিল না। অর্ধশতরান করেন রবীন্দ্র জাদেজা। 

শুক্রবার দু'বার অভিষেক শর্মার ক্যাচ ফস্কান চেন্নাই খেলোয়াড়রা। একবার রবীন্দ্র জাদেজা, অন্যবার শার্দুল ঠাকুর। এর মধ্যে শার্দূল আবার ২০ তম ওভারের প্রথম বলেই নো-বল করেছিলেন। সেই বলে আউটও হয়ে গিয়েছিলেন প্রিয়ম গর্গ। কিন্তু নো-বল হওয়ায় ফিরে আসেন তিনি। শেষপর্যন্ত শেষ ওভারে সাত রান দিলেও শার্দুলের উপর যে খুব একটা খুশি নন, তা স্পষ্ট করে দিয়েছেন ধোনি। তবে এত তাড়াতাড়ি সব শেষ হয়ে গিয়েছে মানতে নারাজ ধোনি। বরং তিনি জানান, সানরাইজার্স ম্যাচে তাদের ভুলত্রুটি গুলো বিশ্লেষণ করার সাথে সাথে তাদের পারফরম্যান্সে যে ইতিবাচক জায়গা গুলি রয়েছে সেগুলোকে মনে রেখেই এগিয়ে যাবেন তারা। প্রসঙ্গত, এদিন সুরেশ রায়নার রেকর্ড ভেঙে আইপিএলে সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার রেকর্ড নিজের নামে করে নেন মহেন্দ্র সিং ধোনি।