বৃহস্পতিবার ভোরে প্রথমে শহর ও শহরতলি জুড়ে কুয়াশা থাকবে। বেলা বাড়ার সঙ্গে কুয়াশা কাটলেও আকাশ আংশিক মেঘলা থাকবে। সম্প্রতি ১৭ তারিখের পর থেকে ঠিক মতো ঠান্ডা পড়ছে না। নুন্যতম তাপমাত্রা এক ঝটকায় ৬-৭ ডিগ্রি বেড়েছে এবং আদ্রতা চরমে হওয়ায় একটা অস্বস্তিভাব অনুভূত হচ্ছে। তাই রাতের দিকে ঠান্ডা থাকলেও বেলা বাড়লে আংশিক মেঘলা আকাশের জন্য হালকা গরম লাগছেই। যদিও আশা হারাতে বারণ করেছে হাওয়া অফিস। এখনও তাপমাত্রা কমার সম্ভবনা রয়েছে।

 

 

আবহাওয়া দফতর আগাম জানিয়েছিল, ১৯ তারিখ থেকে তাপমাত্রা সামান্য বাড়বে। এবং   পূর্বালী হওয়ার প্রভাবে বুধবার ২০ তারিখ থেকে আবার পারদ নিম্নমুখী হবে।  পাশাপাশি উত্তর বঙ্গে  তাপমাত্রা নিম্নমুখী হবে। কলকাতায় বৃহস্পতিবারের নুন্যতম তাপমাত্রা ১৯.২এবং আগামীকাল ও পরশু এই তাপমাত্রা আরও খানিকটা কমবে। পশ্চিমের জেলা পুরুলিয়া ও পশ্চিম বর্ধমানে সর্বত্র শীতের আমেজ বজায় থাকবে। ২১ তারিখ থেকে  আবার ধীরে ধীরে তাপমাত্রা কমার  সম্ভাবনা জানালো হওয়া অফিস। দক্ষিণবঙ্গে পাঁচ জেলাতে আবার ঠান্ডা পড়বে।পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, বীরভূম, পশ্চিম বর্ধমান, মুর্শিদাবাদে আগামী দুদিন শৈত্যপ্রবাহের সম্ভাবনা।   উত্তরবঙ্গের স্বাভাবিকের নিচে তাপমাত্রা। উত্তরবঙ্গের ঘন কুয়াশা সর্তকতা। হালকা বৃষ্টি হতে পারে দার্জিলিং, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়িতে।

 

 

 

আবহাওয়া দফতরের সূত্র অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২৭.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি উপরে। নুন্যতম তাপমাত্রা  ১৫.০  ডিগ্রি  সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি উপরে। কলকাতার নুন্যতম তাপমাত্রা ১৯.২ ডিগ্রি  সেলসিয়াস। শহর ও শহরতলিতে, আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ- সর্বাধিক ৯৯ শতাংশ এবং ন্যুনতম ৫৭ শতাংশ। আবহাওয়া দফতরের সূত্র অনুযায়ী, বুধবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২৫.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। নুন্যতম তাপমাত্রা  ১৯.২  ডিগ্রি  সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের থেকে ৫ ডিগ্রি উপরে। কলকাতার নুন্যতম তাপমাত্রা ১৩.৮ ডিগ্রি  সেলসিয়াস। শহর ও শহরতলিতে, আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ- সর্বাধিক ৯৯ শতাংশ এবং ন্যুনতম ৫৮ শতাংশ।