স্যামসাঙ গ্যালাক্সি নোট ১০ লাইট ভারতের বাজারে আত্মপ্রকাশ ঘটাল। চলতি মাসেই  বিশ্ব বাজারে এই ফোন চলে এসেছে ইতিমধ্যেই। যেহেতু ভারতের বাইরে আগেই লঞ্চ হয়ে গিয়েছে তাই এই ফোনের বিশেষ বৈশিষ্ট্যগুলো আমরা জেনে গিয়েছি ইতিমধ্যেই। স্যামসাঙ গ্যালাক্সি নোট ১০-এর  বুনিয়াদি ভার্সান এটি। নতুন ফোনটিতে থাকছে সম্পূর্ণ এইচডি ডিসপ্লে, তিনটে রিয়ার ক্যামেরা এবং একটি ৪,৫০০ এমএএইচ ব্যাটারি। সবচেয়ে বড় আকর্ষণ এর এস-পেন এবং ইনটেলিজেন্ট ব্যাটারি। 

এস পেন-কে স্মার্টফোন-এৎ জাদুকর বলা হচ্ছে। এই প্রযুক্তিগত পেন দিয়ে একদিকে যেমন ছবি আঁকা যাবে তেমনি লেখা-র কাজকর্ম অতি সহজ এবং সরল হবে। আমাদের দৈনন্দিন জীবনে পেনের যেমন ব্যবহার থাকে, এস পেন এক্কেবারে তেমনই কাজ করবে বলে দাবি স্যামসাঙ-এর। এই মুহূর্তে তিনটি রঙে পাওয়া যাচ্ছে স্যামসাঙ নোট ১০ লাইট। অরা গ্লো, অরা ব্ল্যাক, অরা রেড।

স্যামসাঙ নিজের সাইটে আগ্রহী মানুষের রেজিস্ট্রেশন ইতিমধ্যেই নিতে শুরু করেছে। টেক্সট এক্সপোর্ট ফিচার নামে একটি অত্যাধুনিক এবং নতুন ধরনের সুবিধা থাকছে এই ফোনে। যার ফলে ব্যাবহারকারী এস পেন দিয়ে প্রথমে মেসেজ লিখবেন এবং তারপর পড়া যায় এমন টেক্সটে তা রূপান্তর করতে পারবেন, তারপর সেই মেসেজ কপি, পেস্ট-এও শেয়ার করা যাবে। এছাড়া রিমোট শাটার অপশনও থাকছে যার মাধ্যমে ফোনে হাত না দিয়েও ছবি তোলা যাবে। তেমনি গান চালানো, থামিয়ে দেওয়া কিংবা ফোটো বেছে নেওয়াও যাবে ফোন-স্ক্রিন স্পর্শ না করেই। 

ফাঁস হয়ে যাওয়া তথ্য অনুযায়ী যা জানা গিয়েছে- স্যামসাঙ গ্যালাক্সি নোট ১০ লাইট ৬ জিবির দাম শুরু হয়েছে ৩৩,৯৯৯ টাকা থেকে। আগে বলা হয়েছিল যে হয়তো এই ফোনের দাম  আনুমানিক ৩৫,৯৯০ টাকার মতো হবে। এই ফোনে ৬.৭ ইঞ্চি সম্পূর্ণ এইচডি প্লাস ও সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে রয়েছে, একটি ১০ এনএম এক্সিনস ৯৮১০ অক্টা-কোর এসওসি থাকবে, একটি ৪,৫০০ এমএএইচ ব্যাটারি থাকবে এবং অবশ্যই একটি ইন-ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার থাকছে।

গ্যালাক্সি নোট ১০ লাইট ফোনে তিনটি ১২ মেগাপিক্সেল সেন্সর রয়েছে ফোনের পিছনে, এছাড়াও ৩২ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা রয়েছে।  এই ফোনের মধ্যে ১২৮জিবি অনবোর্ড স্টোরেজ রয়েছে।  ফোনের মাপ হবে ৭৬.১* ১৬৩.৭* ৮.৭ এমএম আর ওজন হবে ১১৯ গ্রাম।