সঞ্জীব দুবে, পূর্ব মেদিনীপুর : হলদিয়ায় মা-মেয়েকে জীবন্ত পুড়িয়ে মারা কাণ্ডে মূল অভিযুক্ত সাদ্দাম সহ চারজনের বিরুদ্ধে সোমবার চার্জগঠন হল হলদিয়া আদালতে। ২০২০ সালে ১৮ ফেব্রুয়ারি হলদিয়ার ঝিকুরখালিতে নদীর চরে দুই মহিলাকে পুড়তে দেখেন স্থানীয় বাসিন্দারা। 

হলদিয়া থানায় খবর দিলে ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ মূল অভিযুক্ত সাদ্দাম ও তার তিন শাগরেদকে গ্রেপ্তার করে। ৯০ দিনের মাথায় পুলিশ চার্জশিট পেশ করে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ১৭ ফেব্রুয়ারি নিউ ব্যারাকপুরের বাসিন্দা রমা দে ও তার মেয়ে রিয়া দেকে হলদিয়াতে ডেকে পাঠায় সাদ্দাম ও ১৮ তারিখ তাদের পুড়িয়ে মারে। 

উল্লেখ্য একটি মাসাজ পার্লারে কাজ করার সুবাদে রিয়ার সাথে পরিচয় হয় সাদ্দামের।  রিয়ার সাথে প্রেমের সম্পর্ক তৈরি করে অবাধে চলতে থাকে মেলামেশা। এরপরে রিয়া এবং তার মা রমা বিয়ের জন্যে চাপ দিতে থাকে সাদ্দামকে। পূর্ব বিবাহিত সাদ্দাম এদের কাছ  থেকে রেহাই পেতেই খুনের ছক কষে এবং হলদিয়ায় ডেকে পাঠায়। দুর্গাচক-এর একটি বাড়িতে খাওয়ার এর সাথে মাদক মিশিয়ে খাইয়ে জীবন্ত অবস্থায় নদীর চরে আগুন লাগিয়ে দেয়।

সোমবার চার্জ গঠনের দিন হলদিয়া আদালতে চত্বরে সাদ্দামের ফাঁসির দাবিতে বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি মহিলা মোর্চা। বিরোধীদের দাবি, উত্তরপ্রদেশের হাথরসের ঘটনা নিয়ে প্রতিবাদ জানাতে যোগীর রাজ্য়ে গিয়েছে তৃণমূলের প্রতিনিধি দল, অথচ রাজ্য়ের মহিলাদের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত নন তারা।