যারা বৈশাখ মাসে বিয়ে করবেন বলে  ভেবেছেন অথবা যাদের বৈশাখ মাসে বিয়ের দিন ঠিক হয়ে রয়েছে। তাদের অবস্থা এখন সবথেকে ভয়াবহ। একদিকে করোনার থাবা আর অন্যদিকে লকডাউন। কতদিন পর্যন্ত এই লকডাউন চলবে তা এখনই বলা যাচ্ছে না। আর  একসপ্তাহ পরই শুরু হয়ে যাবে বৈশাখ মাস। আর বৈশাখ মাস মানেই বিয়ের মরশুম।  কিন্তু অনেকেই আছেন প্রেম করছেন, বিয়ে করবেন বলেও মন স্থির করেছেন কিন্তু এই মুহূর্তে বিয়ে করতে প্রস্তুত নন।  সঙ্গী বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছে আর সেই প্রস্তাবে আপনি কিছু বলতেও পারছেন না। এই ধরনের সমস্যায় পড়ল কীভাবে সেই সমস্যার মোকাবিলা করবেন রইল তার টিপস।

আরও পড়ুন-লকডাউনে বাড়িতেই নিন ত্বকের যত্ন, কাজে লাগান সহজ এই ঘরোয়া উপাদান...

লকডাউন চলাকালীন প্রত্যেকেই ঘরবন্দি। হাতে অঢেল সময়। আর এটাই হল সেই মোক্ষম সময়। বিয়ে হওয়ার আগে হাতে অনেকটা সময়। দুজনে বসে ঠান্ডামাথায় আরও একবার ভাবনা-চিন্তা করে নিন। যদি এই মুহূর্তে বিয়েতে রাজি না থাকেন, তাহলে বিয়ের জন্য মানসিকভাবে  প্রস্তুত হতে আপনার যে আরও খানিকটা সময় দরকার সেটা বুঝিয়ে দিন আপনার পার্টনারকে।বিয়ের জন্য একজন প্রস্তুত থাকলে অপরজনকেও যে সেইমতো রাজি থাকতে হবে তেমনটা কখনই নয়। শুধু তাই নয়,আর যাদের বিয়ের দিন ঠিক হয়ে গেছে। লকডাউনে কীভাবে সেই পরিস্থিতির মোকাবিলা করবেন। বিয়ের প্রসঙ্গে কথা উঠলে মাথা গরম করে ভুল কোনও ডিসিশন নেবেন না। মাথা ঠান্ডা রেখে পুরো বিষয়টি আলোচনা করে তারপর ডিসিশন নিন।

আরও পড়ুন-লকডাউনে বাড়িতে বসে হাঁটুর ব্যথা বেড়েছে, ট্রাই করুন ঘরোয়া টোটকাগুলি...


বিয়ে নিয়ে   যা যা সমস্যা আসছে সেই  কথা নিজের মুখে খুলে বলুন। পরিবার, বন্ধুবান্ধবকে দিয়ে অযথা মিথ্যে কথা বলে সমস্যায় জড়াবেন না। কোনও জায়গাতে আপনার সমস্যা হচ্ছে সেটা খুলে বলুন। পরিবারের চাপে পড়ে অযথা কোনও সিদ্ধান্ত নিতে যাবেন না। যদি নিজের কেরিয়ারে ফোকাস করতে চাইলে সেটাও সত্যি বলে দিন। আপনার কাছে কেরিয়ার না ব্যক্তিগত জীবন কোনটা বেশি গুরুত্বপূর্ণ সেটা নিজে বুঝে সিদ্ধান্ত নিন।একে অপরকে দোষ না দিয়ে ঠান্ডা মাথায় বিষয়টি নিয়ে পরিবারের সকলের সামনে খোলাখুলি আলোচনা করুন। বিয়ে করতে হবে এই ভেবে বিয়ে করে নিজেদের জীবনটা সমস্যায় ফেলবেন না।