করোনা মহাসঙ্কটে একটানা ঘরবন্দি থাকতে থাকতে অনেকেরই সম্পর্কের মধ্যে একঘেয়েমি চলে এসেছে। এছাড়াও দীর্ঘদিন ধরে বাড়িতে  থাকতে থাকতে  মানসিক চাপ, হতাশা, ক্লান্তি গ্রাস করেছে তরুণ প্রজন্মকে। যার ফলেই টিন্ডার থেকে ডেটিং অ্যাপে সময় কাটাচ্ছে কম বয়সের ছেলেমেয়েরা। তবে শুধু ছেলেমেয়েরাই নয়, বিবাহিতরাও ঝুঁকছেন অনলাইন ডেটিং অ্যাপে।  এর থেকেই ক্রমশ বাড়ছে গার্হস্থ্য হিংসা। 

আরও পড়ুন-অতিরিক্ত বেড়েছে 'হাই ব্লাড প্রেশার', মুঠো মুঠো ওষুধের বদলে ব্রেকফাস্টে রাখুন এই ৫ খাবার...

 

 

সম্পর্কের একঘেয়েমি থেকেই মুক্তির স্বাদ খুঁজছে অনেকেই। ব্যক্তিগত সম্পর্কের বাইরে অনেকেই ঝুঁকছেন পরকীয়ায়।  যত দিন যাচ্ছে ডেটিং অ্যাপে ঝুঁকছে ভারতীয়দের একাংশ। সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, মাত্র কয়েক মাসের মধ্যেই গোটা ভারতে  ১০ লক্ষ ইউজার আরও বেড়ে গিয়েছে এক্সট্রা ম্যারিটাল ডেটিং অ্যাপ গুলিতে। নতুনের স্বাদ পেতে টিন্ডার যেন জনপ্রিয়তার শীর্ষে। তবে সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে এক চমকপ্রদ তথ্য। যেখানে দেখা গিয়েছে অ্যাপ  ব্যবহারকারীর বেশিরভাগই মহিলা। পরিস্থিতি যেদিকে এগোচ্ছে তাতে দেখা যাচ্ছে এরকম চলতে থাকলে আর কিছুদিনের মধ্যেই ইউরোপকে টেক্কা দেবে ভারত ।

 

 

সমীক্ষায় আরও দেখা গেছে, ডেটিং অ্যাপে মহিলাদের বেশিরভাগই  মুম্বই, কলকাতা, দিল্লির,  বেঙ্গালুরু,পুনে, হায়দরাবাদের বাসিন্দা। শুধু তাই নয়, তাদের মধ্যে প্রত্যেকেই উচ্চশিক্ষিত এবং অনেকেই ভাল পদে কর্মরত। সেই সমস্ত মহিরালা যারা বেশিরভাগ সময়টাই এই ডেটিং অ্যাপ সময় কাটান, তাদের যাতে কোনওরকম সমস্যায় পড়তে না হয় সেদিকে সর্বক্ষণ নজর রাখছে এই সংস্থা। সমীক্ষায় আরও দেখা গেছে, যারা ওয়ার্ক ফ্রম হোম করছেন দিনের শেষে ক্লান্তি দূর করতে এই সমস্ত অ্যাপকেই বেছে নিচ্ছেন। সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে সেক্স অথবা সেক্সচুয়াল চ্যাটের ভীষণই প্রয়োজন রয়েছে। যার ফলে বেশিরভাগই এই ভার্চুয়াল সম্পর্কেই নিজেদের তৃপ্তি খুঁজে পাচ্ছেন।