সেমিফাইনাল ব্যর্থ হয়ে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের লড়াই থেকে শনিবার ছিটকে গিয়েছিলেন ভারতীয় বক্সার মেরি কম, লোভলিনা ও যমুনা। এই তিন বক্সারই ব্রোঞ্জ পদক পেয়ে বিদায় নিয়েছেন এই প্রতিযোগিতা থেকে। তবে ভারতের হয়ে একা বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের লড়াইয়ে টিকে ছিলেন ভারতের মঞ্জু রানি। ৪৮ কেজি বিভাগের শেষ চারের লড়াই জিতে ফাইনালে স্বর্ণ পদক লক্ষ্য ছিল ভারতীয় মহিলা বক্সার। পদক হাতে দেশের জাতীয় সঙ্গিত শুনতে চেয়েছিলেন এই ভারতীয় বক্সার। তবে রবিবার ফাইনালে সেরার স্বপ্নভঙ্গ হয়ে গেল মঞ্জুর। রূপো পেয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হবে ভারতীয় মহিলা বক্সারকে। দেশের হয়ে স্বর্ণ পদক হাতে জাতীয় সঙ্গিত আর শোনা হল না এই ভারতীয় মহিলা বক্সারের। তবে বক্সিং রিংয়ে ফাইনালে ওঠার লড়াইটা এবছর বেশ নজর কাড়া ছিল মঞ্জুর।

৪৮ কিলো বিভাগে ফাইনালে মঞ্জুর প্রতিপক্ষ ছিল রাশিয়ার একাতেরিনা পাল্টসভা। আর তাঁর কাছেই ফাইনালে ১-৪ ব্যবধানে হারের মুখ দেখলেন মঞ্জু। মেরি কম, যমুনা বোরোর পর এবার স্বপ্ন ভঙ্গ হল এই ভারতীয় বক্সারের। নিজের বিএসএফ বাবাকে হারানোর পর বক্সিং রিংকে একমাত্র কেরিয়ার হিসাবে বেছে নিয়েছিলেন মঞ্জু। আর বাবার স্বপ্ন পূরণ করতে চেয়েছিলেন বিশ্ব বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপে স্বর্ণ পদক জিতে। তবে সেই স্বপ্ন রবিবার ভেঙে গেল মঞ্জুর। তবুও এখানেই থেমে থাকতে নারাজ এই ভারতীয়। আগামী দিনে আরও ভালো করে রিংয়ে ফিরতে চাইছেন ভারতীয় মহিলা বক্সার।

 

চলতি বিশ্ব বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপে এবছর মহিলাদের মধ্যে এবার সর্বোচ্চ রূপোর পদক পেলেন মঞ্জু রানি। তবে ভারতীয় বক্সিং বিশেষজ্ঞদের মতে কিছুটা অভিজ্ঞতার অভাবে ফাইনালে হারের মুখ দেখতে হল ভারতীয় মহিলা বক্সারকে। তবে মহিলা বক্সার হিসাবে দুরন্ত লড়াই করে দেশের মুখ ফের উজ্জ্বল করলেন এই ভারতীয় মহিলা। প্রসংশা পেলেন বক্সি ফেডেরেশনেরও।