Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Woman Slap Man-কুঅভ্যাস বদলাতে থাপ্পরই হাতিয়ার,থাপ্পর মারতে এক মহিলাকে নিয়োগ বিদেশী ব্লগারের

সোশ্যাল মিডিয়ার প্রতি মাত্রারিক্ত আকৃষ্ট। কোনও উপায় না পেয়ে শেষ পর্যন্ত স্বইচ্ছায় থাপ্পর খেয়ে নিজেকে বদলানোর পরিকল্পনা। ব্লগার মণীশ শেট্টি নিয়োগ করেছেন ক্লারাকে।

Man Hires Woman to slap Him When He uses social Media
Author
Kolkata, First Published Nov 14, 2021, 11:56 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

বাচ্চারা দুষ্টুমি করলে মায়েরা তাঁদের সপাটে চড় থাপ্পর মেরে থাকেন, যেটা খুবই সাধারণ একটা ব্যাপার। কিন্তু নিজের জন্য কেও থাপ্পর মারার লোক নিয়োগ করে এমনটা কি শুনেছেন কখনও..যদি না শুনে থাকেন তাহলে এবার শুনুন।  অবাক করা বিষয় মনে হলেও এটাই কিন্তু বাস্তবে ঘটেছে। একজন প্রাপ্তবয়স্ক লোক নিজের খারাপ স্বভাব বদলানোর জন্য একজন মহিলাকে(Women) নিয়োগ করেছেন, যিনি চড় মেরে(Slap)s তাঁর স্বভাব পরিবর্তন করবেন। এবার নিশ্চই সেই ব্যক্তিটার নাম পরিচয় জানার কৌতুহল বাড়ছে। তিনি ভারতীয় বংশভূত মণীশ শেট্টি(Manish Shetty)। কর্মসুত্রে থাকেন সান ফ্রান্সিকোতে। এই ভদ্রলোকের বদ অভ্যেস বলতে, সোশ্যাল মিডিয়ার প্রতি মাত্রারিক্ত আকৃষ্ট(Social Media Addiction)। যার ফলে কাজকর্মেও ক্ষতি হচ্ছিল তাঁর। তাই কোনও উপায় না পেয়ে শেষ পর্যন্ত স্বইচ্ছায় থাপ্পর(Slap)খেয়ে নিজেকে বদলানোর পরিকল্পনা করেছেন পেশায় কম্পিউটার প্রোগ্রামার(Computer Programmer) মণীশ শেট্টি(manish shetty)। তিনি একজন ব্লগারও(Blogger) বটে। 

 ব্লগার মণীশ শেট্টির  ওই উদ্য়োগকে স্বাগত জানিয়েছেন টেসলা (Tesla) এবং স্পেশ এক্সের (SpaceX) CEO ইলন মাস্ক (Elon Musk)।  তাঁর নিজের একটি সংস্থা রয়েছে।  দিনের বেশিরভাগ সময়ই তিনি নাকি ব্য়ায় করতেন বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায়(social Media) । একটি পরিসংখ্য়ান দিয়ে তিনি নিজেই জানিয়েছেন, প্রতি সপ্তাহে তিনি প্রায় ৩০ ঘণ্টা সোশ্যাল মিডিয়া সার্ফ করতেন। এর ফলে তাঁর কাজ করার ক্ষমতা অনেকটা কমে আসছিল। আর সেই বদ অভ্য়াস কাটানোর জন্য়ই তিনি এক মহিলাকে নিয়োগ করেছেন। সেই মহিলার নাম ক্লারা(Clara)। বেতন প্রতি ঘণ্টায় 8 মার্কিন ডলার। ভারতীয় মুদ্রায় যা প্রায় ৫৯৫ টাকার সমান। সুত্রের খবর, ২০১২ সালে ক্লারাকে(Clara) নিয়োগ করেন মণীশ। সেবিষয়ে নিজেই জানিয়েছেন ব্লগার মণীশ শেট্টি। জানিয়েছেন, ফেসবুক বা অন্য় কোনও সোশ্যাল মিডিয়া খুললেই মণীশকে চড় মারেন ওই মহিলা। এর ফলে বর্তমান পরিস্থিতি অনেকটাই উন্নত হয়েছে। তিনি একটি ব্লগ পোস্ট করে পুরো বিষয়টি বিস্তারিত বিবরণ দিয়ে বলেছেন, আগে প্রোডাক্টিভিটি রেট আগে ছিল ৩৫ থেকে ৪০ শতাংশ। বর্তমানে তাঁর কাজের প্রডাক্টিভিটি ৯৮ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

আরো পড়ুন-Insta New Feature-ইন্সটা থেকে কিছুক্ষণের বিরতি, আসক্তি কমাতে আসছে নতুন ফিচার

আরও পড়ুন-Dislike Not Count-ছোট ভিডিও নির্মাতাদের জন্য বড় সিদ্ধান্ত, ইউটিউবে আর দেখা যাবে না ডিজলাইকের সংখ্যা

১০  নভেম্বর এক ট্যুইটার ব্য়বহারকারী পুরো বিষয়টি জানিয়ে একটি পোস্ট করেন। সেই পোস্টটি প্রায় ১১হাজার ৪০০টি লাইক পেয়েছে। এর সঙ্গে প্রচুর রিটুইটও হয়েছে। টেসলার CEO ইলন মাস্ক দুটি ইমোজি পোস্ট করে রিপ্লাই করেছেন। ইলন মাস্কের(Elon Musk) ওই রিপ্লাইয়ের জবাব দিয়ে নিজের পরিচয় দিয়েছেন মণীশ শেট্টি।  সেই সঙ্গে লিখেছন, ইনি এমন একজন যার কাছে মণীশ কখনই পৌঁছতে পারতেন না।  উল্লেখ্য, ব্লগার মণীশ এমন একটি ডিভাইসের কথা ভাবছেন যার মাধ্য়মে খারাপ বা নেগেটিভ চিন্তাভাবনা কমবে এবং পজিজিভ চিন্তাভাবনা বাড়বে।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios