কারেন্ট লোকেশন থেকে শুরু করে নিমন্ত্রণ এখন সব কিছুই চলছে হোয়াটসঅ্যাপ-এর মাধ্যমে। এবার এই জনপ্রিয় অ্যাপে যুক্ত হতে চলেছে নতুন পরিষেবা। জানা গিয়েছে, চলতি বছরই পেমেন্ট পরিষেবা চালু করছে হোয়াটসঅ্যাপ। গত বছরেই দেশের বিটা গ্রাহকেরা হোয়াটসঅ্যাপ পে ব্যবহার করছেন। তবে স্টেবল আপডেটে এই পেমেন্ট সার্ভিস এখনও পৌঁছয়নি। তবে এবার থেকে এবার থেকে ম্যাসেজ পাঠানোর মতোই সহজ হবে পেমেন্ট পরিষেবাও। 

আরও পড়ুন- উন্নতমানের ফিচার ও স্টাইলিস লুক, প্রকাশ্যে এল হুয়াওয়েই-এর ওয়াই৭পি স্মার্টফোন

সংস্থার প্রধাণ উইল ক্যাথকার্ট বৃহস্পতিবার এক বিবৃতি-তে এ কথা জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ভারতে বর্তমানে প্রায় ৪০ কোটির বেশি গ্রাহক হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করেন। তাই এই পরিষেবা এ দেশে চালু করার জন্য অনেক আগেই ইচ্ছে প্রকাশ করেছিলেন তিনি। তবে ভারতের জাতীয় পেমেন্ট কর্পোরেশনের ছাড়পত্র না পাওয়া অবধি সেই প্রসেস চালু করতে পারেন নি সংস্থা। সম্প্রতি, এপিসিআই সেই ছাড়পত্র দিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ-কে। তাই শীঘ্রই পেমেন্ট পরিষেবা চালু করবে হোয়াটসঅ্যাপ। সম্প্রতি এক সাংবাদিক বৈঠকে  উইল ক্যাথকার্ট জানিয়েছেন, ২০১৮ সালেই লঞ্চ হয়েছিল হোয়াটসঅ্যাপ পেমেন্টের বিটা ভার্সান। তবে এবার পুরোপুরিভাবেই তা চালু করতে যাচ্ছে সংস্থা। বর্তমানে দেশের ডিজিটাল পেমেন্টের এক নম্বরে রয়েছে পেটিএম। হোয়াটসঅ্যাপ পেমেন্ট লঞ্চ হলে শিঘ্রই সেই স্থান দখল করতে পারবে বলে আশাবাদী এই মার্কিন মেসেজিং কোম্পানিটি।

আরও পড়ুন- স্মার্টফোনের নেশায় বুঁদ, মুক্তির উপায় দেখাচ্ছে গুগল

 

ইতিমধ্যেই সুপ্রিম কোর্টে হোয়াটসঅ্যাপ জানিয়েছে ভারতে পেমেন্ট সার্ভিস লঞ্চের আগে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের সমস্ত নিয়ম মানবে কোম্পানি। এই বিষয়ে কাউন্টার পয়েন্ট রিসার্চ অ্যাসোসিয়েট-এর ডিরেক্টর তরুন পাঠক বলেছেন, ভারতে মানুষ বেশি ইন্টারনেট ব্যবহার করেন। আর সেই কারনেই এদেশে ডিজিটাল ওয়ালেট খুব দ্রুত জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। আর দেশের বেশিরভাগ মানুষ যেহেতু এই মেসেজিং অ্যাপের সঙ্গে যুক্ত তাই এই বিভাগে এক নম্বর হয়ে উঠতে খুব একটা বেশি বেগ পেতে হবে না হোয়াটসঅ্যাপ-কে। প্রথম ধাপে দেশের এক কোটি গ্রাহকের মধ্যে এই পেমেন্ট সার্ভিস শুরু করবে বলে জানা গিয়েছে সংস্থার তরফ থেকে।