রোজই নতুন নতুন এলাকায় ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস। প্রতিদিনই প্রাণ-ও হারাচ্ছেন বহু  মানুষ। এই নিয়ে ভয় এবং উদ্বেগ গোটা বিশ্বেই চেপে বসেছে। বহু জায়গাতেই এখন নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের ব্যাপক চাহিদা দেখা দিয়েছে। নতুন উচ্চতায় পৌঁছেছে হ্যান্ড স্যানিটাইজার, ফেস মাস্ক এবং টয়লেট পেপার-এর রোল-এর চাহিদা। এরমধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ছবিটা কিছুটা আলাদা।

মার্কিনিরা লাইন লাগিয়েছেন বন্দুক এবং গোলাবারুদ-এর দোকানের সামনে। স্বাস্থ্য সংক্রান্ত ও নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের থেকেও আমেরিকায় এখন বন্দুক এবং গোলাবারুদের বিক্রি ব্যাপক হারে বেড়েছে। গত সপ্তাহ থেকেই বিভিন্ন প্রদেশে বন্দুকের দোকানের বাইরে ক্রেতাদের দীর্ঘ লাইন দেখা যাচ্ছিল, এই সপ্তাহে তা আরও লম্বা হয়েছে। ক্যালিফোর্নিয়া, নিউ ইয়র্ক, ওয়াশিংটন - তিন শহরে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি থেকে মার্চের শুরুর মধ্যেই বিক্রি বেড়েছে ৬৮ শতাংশ। উত্তর ক্যারোলিনা এবং জর্জিয়া রাজ্যে বিক্রি বেড়েছে ১৭০ শতাংশ।

ক্রেতারা জানিয়েছেন কোভিড-১৯ সঙ্কটে সামাজিক অস্থিরতার আশঙ্কা করছেন তাঁরা। ইতিমধ্যেই অনেক জায়গাতেই টয়লেট পেপারের রোল এবং হ্যান্ড স্যানিটাইজার কেনা নিয়ে ঝগড়া এবং তা থেকে হাতাহাতি হতে দেখা গিয়েছে। কেউ কেউ আবার বিপুল চাহিদা থাকা পণ্যগগুলি মজুত করে তার থেকে বিপুল লাভ করার চেষ্টাও করছেন। এই অবস্থায় করোনাভাইরাস আতঙ্কে সামাজিক অস্থিরতা এবং খাবার ও সরবরাহের ঘাটতির আশঙ্কা করছেন মার্কিনিরা। ফলস্বরূপ, লুটপাট শুরু হতে পারে। এই লুটেরাদের থেকে পরিবারকে বাঁচাতেই তাঁরা অস্ত্র কিনছেন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত মোট ৫৭৪৮ জন কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত। আর মৃতের সংখ্যা কমপক্ষে ১১৫। আগামী দিনে এই সংখ্যা আরও বাড়লে বন্দুকের বিক্রি আরও বাড়বে বলে মনে করা হচ্ছে।