ফোটোশপে তৈরি করা একটি দেবী দুর্গার মূর্তি নিয়ে এবার বিতর্ক শুরু হয়ে মার্কিন নির্বাচনে। ডেমোক্র্যাট ভাইস প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী কমলা হ্যারিসের ভাগ্নি একটি ছবি শেয়ার করেছিলেন যেখানে কমলা হ্যারিসকে দেবী দুর্গা হিসেবে দেখানো হয়েছিল। আর মার্কিন রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্পকে তুলনা করা হয়েছিল মহিষাসুরের সঙ্গে। আর জো বিডন হল হিংস। কিন্তু নেটিজেনদের চূড়ান্ত সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি। তার তারপরেই মুছে ফেলেন ছবিটি। 

মীনা হ্যারিস যখন ছবিটি পোস্ট করেছিলেন তখন তিনি বলেছিলেন, তিনি নির্বাক। পাশাপাশি বলা যেতে পারে নবরাত্রিরের প্রথম দিনছিল এসআইটি। তবে তাঁর এই ট্যুইটটি ভালোভাবে নেননি নেটিজেনরা। রীতিমত সমালোচনার ঝড় উঠতে শুরু করে। আর তারপরই নিঃশব্দে ট্যুইটি সরিয়ে ফেলেন মীনা। এই ছবি পোস্ট করার পরই অনেকেই মনে করেন রাজনীতির ময়দানে সাফল্য পাওয়ার জন্যই হিন্দুদের ঐতিহ্য আর ভাবাবেগকে কাজে লাগানোর চেষ্টা করছে ডেমোক্র্যাটরা। অনেকেই আবার প্রশ্ন তোলেন এই জাতীয় কোনও কাজ কী মুসলিমদের সঙ্গে করতে পারতেন। 

রিপাব্লিকদের অভিযোগ প্রথম থেকেই কমলা হ্যারিস ভারতীয় বংশোদ্ভূতদের ভোট পেতে মরিয়া প্রয়াস চালাচ্ছেন। আর সেই কারণেই হিন্দুদের ধর্মীয় ভাবাবেগকে কাজেও লাগায়িছেন। যদিও ডেমোক্র্যাটদের তরফে এই অভিযোগ বারবার অস্বীকার করা হয়েছে। কিন্তু  নবরাত্রের শুরুতেই কমালা হ্যারিস সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। পাশাপাশি জো বিডনও সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে বলেছেন অশুভর দমন হোক। যা অনেকটাই মিলে যায় হিন্দু ধর্মীয় প্রথার সঙ্গে। কারণ পুরাণ অনুযায়ী অশুভ শক্তির বিনাস করে শুভ শক্তির প্রতিষ্ঠা করাই নবরাত্রি বা দুর্গাপুজোর উদ্দেশ্য। ভোটের সময় হিন্দুদের প্রতীক ব্যবহার করার অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ডেমোক্র্যাটদের বিরুদ্ধে।