চিনা সেনা বাহিনীকে প্রতিপদে নাস্তানাবুদ করে ছাড়ছে ভারতীয় জওয়ানরা। যদিও চিনের পিপিলস লিবারেশন আর্মি ভারতীয় সেনা বাহিনীর থেকে অনেকটাই বেশি আধুনিক। প্রযুক্তিগতভাবে অনেকটাই উন্নতন। কিন্তু তাও পূর্ব লাদাখে সেই লাল ফৌজকেই বেশ কয়েক মাস ধরে রীতিমত টক্কর দিয়ে যাচ্ছে ভারতীয় সেনা। মনি করিয়ে দিচ্ছে ভিয়েতনাম ।যুদ্ধের কথা। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি প্রথম সারির ম্যাগাজিনে ভারতীয় জওয়ানদের প্রশংসার বন্যা বাইয়ে এমনই মন্তব্য করা হয়েছে। 

 মার্কিন প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ৬৭ বছরের চিনা প্রসিডেন্ট সি জিংপিং পূর্ব লাদাখ সীমান্তে অগ্রাসনের জন্য একের পর এক কড়া পদক্ষেপ নিয়েছিলেন। কিন্তু প্রতিটি পদক্ষেপই বানচাল করেছে ভারতীয় সেনা বাহিনী। প্রতিবেদন গালওয়ান সংঘর্ষের কথা উল্লেখ করে বলা হয়েছে, গত ১৫ জুন সংঘর্ষে ২০ জন ভারতীয় জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু চিন এখনও পর্যন্ত জানায়নি সেদেশের কতজন সেনার মৃত্যু হয়েছে। এরথেকে বোঝা যায় চিনা সেনার মৃত্যুর সংখ্যা ভারতের থেকে বেশি। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে গত এক মাস ভারতীয় বাহিনী সীমান্ত রক্ষার জন্য আরও হিংস্রভাবে লড়াই করছে চিনা সেনার বিরুদ্ধে। আর সেই কারণে রীতিমত বদলে গেছে সীমান্ত দখলের খেলা। বর্তমানে পুরো গেমই ভারতীয়দের হাতে বলেও মন্তব্য করা হয়েছে।

 

কারণ গত ৪৫ বছরে ভারত ও চিনা সেনা কখনও এই ভাবে সংঘর্ষে জড়ায়নি। আর ভারত একাধিক ক্ষেত্রে চিনা সেনার আগে পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। কারণ ইতিমধ্যেই কৌশলগত উচ্চ অবস্থানগুলি দখল করেছে ভারত। যা দখল করার মরিয়া প্রয়াস চালাচ্ছে চিন। আর সেখানেই ভারতীয় বাহিনীর পরাক্রমের কাছে হার মানতে হয়েছে বারবার। চিনা সেনার এই নাস্তানাবুদ হওয়ার কথা ভিয়েতনাম যুদ্ধের কথা স্মরণ করিয়ে দিচ্ছে বলেও মন্তব্য করা হয়েছে প্রতিবেদনে। বলা হয়েছে ভারতের তুলনায় অনেকটাই ছোট দেশ ভিয়েতনাম। কিন্তু ১৯৭৯ সালে সেই কমিউনিস্ট দেশটি দখল করতে গিয়েছিল চিনের লাল ফৌজ। কিন্তু ভিয়েতনাম সেনার দৃঢ় মনোভার আর পরাক্রমের কাছে হার মানে লাল ফৌজ। তাই বলা হয়েছে চিনের স্থল বাহিনীর সাফল্যের তেমন ট্র্যাক রেকর্ড নেই।

মার্কিন প্রতিবেদনে বলা হয়েছে চিনের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে স্থানীয় নেতারা শি-কে আড়াল করতে কোনও না কোনও পন্থা খুঁজে বার করবে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত যা পরিস্থিতি তাতে শির পরিকল্পনা পুরোপুরি ফ্লপ হয়েছে বলা যেতে পারে। আর সেই কারণে হিমালয় দখলের স্বপ্ন আপাতত বাস্তবায়িত হচ্ছে না বলেও মনে করা হচ্ছে।