ইনজেকশন সিরিঞ্জে জীবানুনাশক ভরে কোভিড-১৯ রোগীদের শরীরে ঢুকিয়ে দেওয়া হোক। কিংবা এই মারাত্মক ভাইরাসকে মারার জন্য রোগীদের দেহের 'ভিতরে' অতিবেগুনি রশ্মি বা ইউভি আলো ফেলা হোক। শুক্রবার, এইসব অপ্রচলিত কোভিড-১৯ চিকিৎসার সম্ভাবনা নিয়ে তাঁদের বিজ্ঞানীদের গবেষণার বিষয়ে আনার সম্ভাবনা সম্পর্কে পরামর্শ দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। যা শুনে রীতিমতো আঁতকে উঠেছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। 'ডাক্তার ট্রাম্প'-এর এইসব পরামর্শ মানুষকে বিপদের মুখে ঠেলে দিতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন তাঁরা।

এদিন মার্কিন হোমল্যান্ড সিকিউরিটি ফর সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির আন্ডার সেক্রেটারি বিল ব্রায়ান বলেন, দেখা গিয়েছে সূর্যালোক এবং আর্দ্রতার সংস্পর্শে এলে করোনাভাইরাস অত্যন্ত দ্রুত মারা যায়। আইসোপ্রোপাইল অ্যালকোহল ৩০ সেকেন্ডের ভাইরাসটিকে মেরে ফেলে। ব্রায়ানের এই মন্তব্যের পরই 'ডাক্তার ট্রাম্প'-এর মগজের বাতি জ্বলে ওঠে।

তিনি বলেন, জীবাণুনাশক যদি এক মিনিটের মধ্যেই ভাইরাসটিকে মারতে পারে, তাহলে দেখতে হবে, এমন কোনও উপায় আছে কি না, যাতে কোনও জীবানুনাশক শরীরে ইনজেকশন দিয়ে ঢুকিয়ে দেওয়া যায় বা বা প্রায় শরীরের ভেতরটা ধুয়ে মুছে সাফ করে নেওয়া যায়। এখানেই থামেননি 'ডাক্তার ট্রাম্প'। তিনি আরও বলেন, সরাসরি সূর্যালোক-এ যদি ভাইরাসটি মারা যায়, তাহলে অতিবেগুনি রশ্মি বা অন্য কোনও শক্তিশালী আলোকরশ্মি দিয়ে শরীরে সজোরে আঘাত করে কিংবা দেহের অভ্যন্তরে কোনওভাবে সেই আলো ফেলা যায় কিনা। ত্বকের মাধ্যমে বা অন্য কোনও উপায়ে এই আলোকরশ্মি শরীরের ভেতরে পাঠানো যেতে পারে বলে তিনি মন্তব্য করেন।  

মার্কিন প্রেসিডেন্টের এই ডাক্তার ডাক্তার খেলা মোটেই ভালোভাবে নেয়নি বিজ্ঢানী ও চিকিৎসক মহল। এমনতিতেই অনেক সময়ই মানুষ আতঙ্কে ইসোপ্রোপাইল অ্যালকোহল খেয়ে নিচ্ছেন, নিজে নিজে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন খেয়ে নিচ্ছেন - নানাভাবে বিপদ বাড়াচ্ছেন। ট্রাম্পের এইসব অবিশ্বাস্য মন্তব্যে মানুষ এবার জীবাণুনাশক ইনজেকশন নেওয়া বা খাওয়ার শুরু করতে পারেন বলে আশঙ্কা করছেন তাঁরা। বারবার করে তাঁরা সতর্ক করেছেন, এগুলি অত্যন্ত বিষাক্ত।

লাগবে একটা এক্স-রে স্ক্যান, ৫ সেকেন্ডেই কোভিড-১৯ রোগী ধরবে আইআইটির সফটওয়্যার

 

সামনে এল করোনার নতুন উপসর্গ, ডাক্তারদের নজর এবার পায়ের দিকে

আইসিএমআর-এর অনুমোদন পেল দিল্লি আইআইটি, একধাক্কায় সস্তা হচ্ছে করোনা পরীক্ষা

এমনকী লাইজল এবং ডেটল - অত্য়ন্ত পরিচিতত দুই জীবানুনাশক পণ্যের মালিক, রেকিট বেনকিজার বলেছেন, 'ইনজেকশন-এর মাধ্যমে হোক বা অন্য কোনওভাবে, কোনও পরিস্থিতিতে জীবাণুনাশক পণ্যগুলি মানুষের দেহে প্রবেশ করা উচিত নয়'। তারা মানুষকে আর্জি জানিয়েছে, তাদের পণ্যের গায়ে লেখা সুরক্ষা সম্পর্কিত তথ্যগুলি পড়ার জন্য। এমনকী মার্কিন খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসনের কমিশনার ডাঃ স্টিফেন হান, যিনি কিনা খোদ হোয়াইট হাউস করোনাভাইরাস টাস্ক ফোর্সের সদস্য, তিনিও করোনাভাইরাসকে মারতে কোনও জীবাণুনাশক খাওয়া বা ইনজেক্ট করার বিরুদ্ধে সতর্ক করেছেন।

কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল সেন্টারের জরুরি ওষুধ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক দারা কাস বলেছেন, এই জাতীয় রাসায়নিক গ্রহণ করলে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই মৃত্যু পাকা। যারা বেঁচে যাবেন, তাদের সারাজীবন নলের করে খাদ্য গ্রহণ করতে হবে। কারণ জীবানুনাশকে তাদের মুখ এবং খাদ্যনালী ক্ষয়ে যাবে।