দাদা এক দলে তো ভাই অন্যদলে। কিংবা স্বামী একদল করেন, কিন্তু স্ত্রীর অন্যদলে যুক্ত। রাজনীতির পরিসরে এই ধরনের ঘটনা হামেশাই ঘটে থাকে। কিন্তু এক নজিরবিহীন ঘটনার সাক্ষী থাকল বাংলার রাজনীতি। একুশের বিধানসভা নির্বাচনের আগে যা কিনা আলোড়ন ফেলে দিয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে। স্ত্রী বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়ায়, তাঁকে সরাসরি ডিভোর্সের নোটিস পাঠালেন সাংসদ। 

আরও পড়ুন-'সৌমিত্র খাঁ-র সুবুদ্ধি হলে উনিও ফিরবেন', তৃণমূলে যোগ দিলেন BJP সাংসদের স্ত্রী সুজাতা খাঁ

রাজ্য বিজেপিতে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে রয়েছেন বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। আগামী বিধানসভা ভোটের আগে তাঁকে বাংলা জুড়ে জোর প্রচার শুরু করেছে বিজেপি। কিন্তু এই অবস্থায় শুভেন্দুর মাস্টারস্ট্রোক দিল তৃণমূল কংগ্রেস। তৃণমূলে যোগদান করলেন বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁয়ের স্ত্রী সুজাতা। সোমবার তৃণমূলের বর্ষীয়ান সাংসদ সৌগত বসু সুজাতার হাতে তৃণমূলের পতাকা তুলে দেন। সেখানে উপস্থিত ছিলেন কুণাল ঘোষও।

বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁয়ের স্ত্রী সুজাতা তৃণমূলে যোগ দিয়েই বিস্ফোরক মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, ''একটা চ্যালেঞ্জ নিলাম। কারণ, বিজেপির হয়ে প্রচুর লড়াই করেছি। কোনও নিরাপত্তা ছাড়াই নিজের প্রাণ বাজি রেখেছি। কিন্তু, বিজেপি কোনও সম্মান দেয়নি''। এরপরই, সৌমিত্র খাঁ তাঁকে ডিভোর্সের নোটিস পাঠিয়ে দিয়েছেন। রাজনৈতিক মহলের মত, পারিবারিক লড়াই যুযুধান দুই পক্ষের রাজনীতিকে কোথায় নিয়ে যায়।

আরও পড়ুন-দল বদলের পর 'উধাও' দাদার অনুগামীরা, এখন কোন জায়গায় শুভেন্দু অধিকারীর জনপ্রিয়তা

প্রসঙ্গত, গত লোকসভা ভোটে বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁয়ের জয়ের পিছনে স্ত্রী সুজাতার গুরুত্ব অপরিসীম। মূলত তাঁর চেষ্টাতেই ভোটে জিততে পেরেছিলেন সৌমিত্র খাঁ। আদালতের নির্দেশে প্রচারে যেতেন পারেনি তিনি। স্ত্রী সুজাতা নিজেই মাঠে নেমে লড়াই করেছিলেন তৃণমূলের বিরুদ্ধে।