কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর সফরের দ্বিতীয় দিনে বিশ্বভারতীতে নানান অরাজনৈতিক কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছিলেন। এরপরই, ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রাজনীতি প্রবেশের অভিযোগ করে তৃণমূল। পাশাপাশি, শাহর নীচে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ছবি ঘিরে আরও তোলপাড় হয় রাজ্য রাজনীতি। এই পরিস্থিতি সরাসরি বিশ্বভারতীয় উপাচার্যের বিরুদ্ধেই আঙুল তুললেন বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। বিশ্বভারতীতে রাজনীতি প্রবেশের অভিযোগ করলেন তিনি।

আরও পড়ুন-কাঁথিতে তৃণমূলের মিছিল, জবাব দিতে পালটা মহামিছিলের ডাক দিলেন শুভেন্দু

বিশ্বভারতীর উপাচার্যকে নিশানা করে বলেন, এক পাগল ভিসি। যা খুশি তাই করে। এরমক হলে মানব না। এতদিন বিশ্বভারতী নিয়ে রাজনীতি করিনি। এবার করব। ভিসি যদি পাগলামি না ছাড়ে, বিশ্বভারতীতে গিয়ে পতাকা লাগিয়ে দেব। উনার মস্তিষ্ক খারাপ বলে তো সকলের নয়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী একশোবার বিশ্বভারতীতে আসতে পারেন। তবে ভিজিটর্স লেখা সেটা রবীন্দ্রনাথের।

আরও পড়ুন-অমিত শাহের পালটা তৃণমূল, বছর শেষে বোলপুরে রোড শো করবেন তৃণমূল নেত্রী

রবিবার অমিত শাহ যখন বোলপুরে রোজ শো করছিলেন। ঠিক তখনই, বোলপুরের পাড়ায় পাড়ায় পালটা তৃণমূল বঙ্গধ্বনী যাত্রা কর্মসূচি নেয়। সেখানে নেতৃত্ব দেন বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। বাইরে থেকে লোক এনে রোড শোয়ের লোক ভারনো হয়েছিল বলে দাবি করেন তিনি। এরপর, আগামী ২৯ ডিসেম্বর ওই বোলপুরে সভা করার কথা তৃণমূস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। তবে, অমিত শাহ যেখানে রোড করেছিলেন সেখানেই তৃণমূল নেত্রী রোড শো করবেন কিনা তা এখনও স্পষ্ট নয় তৃণমূলের তরফে।