সোমবার বীরভূম সফরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রশাসনিক বৈঠকের পাশাপাশি রাজনৈতিক কর্মসূচিও রয়েছে তাঁর মঙ্গলবার বোলপুরের একটি রোডশো করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর সেই রোড শো-এর মূল থিম হবে রবীঠাকুর। কারণ রোড শোতে থাকবে তিননি ট্যাবলো। শিল্পীরা রবীন্দ্রসঙ্গীত গাইবেন। আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে এগিয়ে যাচ্ছে বিজেপি। দলের শীর্ষ নেতৃত্ব বাংলা সফরের পাশাপাশি কেন্দ্রে থেকেও বাংলার দিকে মনোনিবেশ করেছেন। বাংলার মানুষের রবীন্দ্রভাবাবেগকেও কাজে লাগাতে চাইছে গেরুয়া শিবির। এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে তৃণমূল কংগ্রেসও রবীন্দ্রভাবাবেগকে হাতিয়ার করে ভোট ময়দানে নামার প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে। 

বর্তমান বাংলার রাজনীতি বোলপুর-শান্তিনিকেতনকে কেন্দ্র করেই আবর্তিত হচ্ছে। সম্প্রতি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত সাহ শান্তিনিকেতনে গিয়েছিল। বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের শর্তবর্ষ উদযাপন অনুষ্ঠানে ভার্চুয়াল ভাষণ দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ইস্যুতে কিছুটা হলেও বিজেপি তৎপরতা বাড়াতে শুরু করেছে। আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের আগে রা রুখে দিয়ে রীতিমত তৎপর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যা। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের কথায় সেই কারণেই তিনি বীরভূম-বোলপুরে দুদিনের কর্মসূচি গ্রহণ করেছেন তিনি। 

মুখ্যমন্ত্রীর সফরের আগে প্রস্তুতি খতিয়ে দেখতে রবিবারই বোলপুর পৌঁছে গিয়েছেন রাজ্যের মন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেন। বোলপুরের রোডশোতে যেসব শিল্পীরা রবীন্দ্রসঙ্গীত গাইবেন তাঁদের অনুশীলনের সময়ও উপস্থিত ছিলেন তিনি। ইন্দ্রনীল সেন বলেন গানের মাধ্যমেই রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ভাবনা ও আদর্শকে তুলে ধরার চেষ্টা করা হচ্ছে। ইতিমধ্যেই তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে প্রচার করা হচ্ছে, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কখনই উগ্রহিন্দুত্ববাদকে সমর্থন করেননি।