একুশের বিধানসবভা ভোট এগিয়ে আসতেই জমে উঠেছে শিলিগুড়ির রাজনীতি। নিজেদের মাটি শক্ত রাখতে জোরকদমে প্রচার শুরু করেছে বিজেপি-তৃণমূল-সিপিএম। 'দুয়ারে সরকার' নিয়ে বাড়িতে বাড়িতে হাজির হচ্ছেন তৃণমূল নেতারা। তৃণমূলের এই কর্মসূচিকে কটাক্ষ করলেন শিলিগুড়ির পুরপ্রশাসক অশোক ভট্টাচার্য। 'যমের দুয়ারে সরকার' বলে কটাক্ষ করলেন তিনি।

আরও পড়ুন-'আমপানের টাকা চোর, তোলাবাজ ভাইপো হটাও', দাঁতন থেকে তৃণমূলকে তীব্র আক্রমণ শুভেন্দুর

সম্প্রতি, শিলিগুড়ির বিধায়ক তথা শিলিগুড়ি পুর নিগমের প্রাক্তন মেয়র দুয়ারে সরকার প্রকল্পকে কটাক্ষ করেন। তিনি বলেন, 'ওটা দুয়ারে সরকার না কি, যমের দুয়ারে সরকার, সেটা মানুষ ঠিক করবেন''। তাঁর এই মন্তব্যের পরই, রবিবার সকালে শিলিগুড়ি পুর নিগমের ২০ নম্বর ওয়ার্ডে বঙ্গধ্বনী যাত্রার আয়োজন করে কো-অর্ডিনেটর তথা পুর নিগমের বিরোধী দলনেতা রঞ্জন সরকার। এই ওয়ার্ডে বসবাস করেন শিলিগুড়ির বিধায়ক অশোক ভট্টাচার্য। তিনি বাড়িতে না থাকায় বর্তমান সরকারের কর্মকাণ্ডের রিপোর্ট কার্ড তার স্ত্রীর হাতে তুলে দিলেন তিনি।

আরও পড়ুন-জমি বিতর্কে অর্মত্য সেনকে হেনস্থার অভিযোগ, বাংলা আকাদেমিতে প্রতিবাদে সরব বিশিষ্টজনেরা

রঞ্জন সরকার বলেন, ''মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে গত দশ বছরে মানুষের জন্য আমরা কি কাজ করেছি তা তুলে দিতেই তাঁদের এই বঙ্গধ্বনী যাত্রা''। পাশাপাশি এলাকার মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে সরকারের রিপোর্ট তুলে দেয় তিনি। অন্যদিকে, একই ওয়ার্ডে জনসংযোগ বাড়াতে সকাল থেকে নেমে পড়েছেন বিধায়ক অশোক ভট্টাচার্যও। তিনি বলেন, ''তৃণমূল যা করছে তার মধ্যে আনুষ্ঠানিকতা রয়েছে । আমারা যেটা করি তারমধ্যে আনুষ্ঠানিকতা নেই। মানুষের সুবিধা অসুবিধা শোনা ও তা সমধান করাই বাম নেতৃত্বের প্রধান কাজ''।