নন্দীগ্রাম বিধানসভায় প্রার্থী দিতে চলেছে বামফ্রন্টের বড় শরিক সিপিএম। পূর্ব মেদিনীপুরের ওই আসনের জন্য ভাবনায় দুই জন প্রার্থীর নাম রয়েছে. আলিমুদ্দিন সূত্রএর খবর, জেলা সিপিএম নের্তৃত্ব ২ জন দলীয় নেতার নাম প্রার্থী হিসেবে সুপারিশ করেছে। প্রথম জন জেলা ডিওয়াইএফআই এর সম্পাদক পরিতোষ পট্টনায়ক এবং দ্বিতীয় জন মহাদেব ভুঁইয়া।

পরিতোষ জেলা যুব সংগঠনের অন্যতম মুখ। ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটে সিপিএমের হয়ে কাঁথি লোকসভা আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাও করেন তিনি। তবে ভোট পেয়েছিলেন মাত্র ৭৬ হাজার ১৮৫ টি। তাই স্বাভাবিক ভাবেই জেলা যুব সংগঠনের অন্যতম মুখ হওয়ার জন্য নন্দীগ্রামের প্রার্থী হওয়ার জন্য ময়দানে এগিয়ে পরিতোষই। অপরদিকে মহাদেব ভুইয়া পূর্ব মেদিনীপুর জেলা সিপিএম নের্তৃত্বের গরুত্বপূর্ণ সদস্য। জেলা পার্টির একাংশ মনে করেছে, মহাদেবই নন্দীগ্রামে প্রার্থী হবেন। তবে প্রার্থী মনোনয়নের বিষয়টি মুজফ্ফর আহমেদ ভবনের উপরেই ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ।

অপরদিকে, বুধবার দুপুরে অবশেষে এল সেই মাহেন্দ্রক্ষণ। নন্দীগ্রামের থেকে প্রার্থী হয়ে হলদিয়ায় গিয়ে মনোনয়ন পত্র জমা দিলেন মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়।  ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের জন্য নন্দীগ্রামের প্রার্থী হয়ে করলেন একের পর এক পাতায় সই। সুব্রত বক্সিকে সঙ্গে নিয়ে মনোনয়ন পত্র জমা মমতার। মনোনয়ন জমা দেওয়ার আগে রেয়া পাড়া শিব মন্দিরে পুজোও দেন মমতা। করেন রোড শোও। নন্দীগ্রামে এদিন মমতার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বি শুভেন্দু অধিকারীও প্রচার চালিয়েছেন। মুখে দলীয় স্লোগান, হরে কৃষ্ণ হরে হরে, বিজেপি ঘরে ঘরে।'