বুধবার (২০ জানুয়ারি), তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিলেন প্রাক্তন সিএবি সচিব বিশ্বরূপ দে। এদিন তৃণমূল সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের সঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেস ভবনে আসেন বিশ্বরূপ। তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ সুখেন্দু শেখর রায়, তাঁর হাতে তৃণমূল কংগ্রেসের পতাকা তুলে দেন। তাঁর সঙ্গে আরও ১২৫ জন পুরুষ ও মহিলাও এদিন তৃণমূলে যোগ দিলেন। তাঁরা সকলেই 'সাধারণ মানুষ' বলে দাবি করেছেন বিশ্বরূপ, অন্য কোনও রাজনৈতিক দল থেকে আসেননি।

এদিন তৃণমূলে যোগদানের পর সিএবির প্রাক্তন সচিব বিশ্বরূপ দে জানান, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের টিম হিসাবে লড়ার 'স্পিরিট' দেখেই তিনি তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিলেন। তৃণমূল দলের দারুণ ভক্ত তিনি, এমনটা নয়। সদ্য ভাঙাচোরা ভারতীয় ক্রিকেট দলের অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ঐতিহাসিক টেস্ট জয়ের প্রসঙ্গ তোলেন তিনি। বলেন, টিম ইন্ডিয়া যেমন কে আছে, কে নেই - তা না ভেবে লড়াই করে গিয়েছে, মমতাকেও একই ভাবে লড়তে দেখছেন তিনি। আর সেটাই তাঁকে মুগ্ধ করেছে। আর তাই জোড়াফুল শিবিরে এলেন তিনি।

বিশ্বরূপ আরও বলেন, মমতা বন্দ্যোরাধ্যায়কে কখনও আক্রমণ করছেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, কখনও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, কখনও বা পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখর। আর সমস্ত ডেলিভারিকে মমতা কখনও হুক করছেন, কখনও কাট মারছেন। এই 'লড়াকু' মমতার পাশে সকল রাজ্যবাসীকে দাঁড়ানোর আহ্বানও জানান তিনি। সেইসঙ্গে নাম না করে তৃণমূল ছেড়ে যাওয়া নেতাদেরও কটাক্ষ করেন তিনি। বলেন, তিনি শেষ পর্যন্ত ক্রিজে পড়ে থাকবেন। মাঝপথে খেলা ছেড়ে পালাবেন না।

হঠাৎ প্রাক্তন ক্রিকেট প্রশাসক কেন তৃণমূলে যোগ দিলেন, তা নিযে রাজনৈতিক মহলে জল্পনা তৈরি হয়েছে। এর আগে প্রাক্তন ভারতীয় দলের অধিনায়ক তথা বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্য়ায় বিজেপি-র মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হবেন বলে গুঞ্জন শোনা গিয়েছিল। সেই জল্পন বিজেপি নেতারা উসকে দিলেও, সৌরভ গঙ্গোপাধ্য়ায়ের পক্ষ থেকে এই বিষয়ে কিছুই জানানো হয়নি। বিজেপির সেই পদক্ষেপের পাল্টা হিসাবেই কি ক্রিকেট প্রশাসক বিশ্বরূপ দে-কে তৃণমূল কংগ্রেস দলে নেওয়া হল - এই নিয়ে চর্চা শুরু হয়েছে।